mamata banerjee

নিজস্ব প্রতিনিধি: নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে আগামিকাল কলকাতায় গান্ধী মূর্তি পাদদেশে ধরনায় বসেছেন তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। নির্বাচন কমিশন তাঁর প্রচারে নিষেধাজ্ঞা জারি করার পর টুইট করে জানালেন তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী। আগামিকাল দুপুর বারোটায় ময়দানের গান্ধি মূর্তির পাদদেশে ধরনায় বসেছেন তিনি।

আগামিকাল বিধাননগর এবং উত্তর চব্বিশ পরগণায় চারটি সভা ছিল মুখ্যমন্ত্রীর৷ বারাসত, বিধাননগর, কল্যাণী ছাড়াও কিষানগঞ্জে জনসভা ছিল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের৷ কিন্তু কমিশনের সিদ্ধান্তে মঙ্গলবার কোনও প্রচারই করতে পারবেন না মুখ্যমন্ত্রী৷ কমিশনের এই নির্দেশে প্রত্যাশিত ভাবেই কড়া প্রতিক্রিয়া দিয়েছে তৃণমূল৷ তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ও’ ব্রায়েন ট্যুইট করে বলেছেন, ‘১২ এপ্রিল গণতন্ত্রের পক্ষে কালো দিন৷’ তৃণমূল মুখপাত্র কুণাল ঘোষ বলেন, ‘বিজেপি শাখা সংগঠনের কাজ করছে নির্বাচন কমিশন৷ মানুষ এর জবাব দেবে৷’

প্রসঙ্গত, গত ৭ এবং ৮ এপ্রিল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে শো-কজ করে দু’টি নোটিস পাঠিয়েছিল নির্বাচন কমিশন৷ সেই নোটিসের জবাবও দেন মুখ্যমন্ত্রী৷ কিন্তু মুখ্যমন্ত্রীর জবাবে সন্তুষ্ট না হয়েই তাঁর প্রচারে নিষেধাজ্ঞা জারি করল কমিশন৷ নির্বাচন কমিশনের ভূমিকা নিয়ে বার বার প্রশ্ন তুলেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এছাড়া মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর নির্বাচনী সভা থেকে এমন উত্তেজক মন্তব্য করেছেন, যেখানে রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা ভেঙে পড়তে পারে বলে অভিযোগ উঠেছে। এই বিষয়ে নির্বাচন কমিশনের তরফে নোটিশ পাঠানো হয় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে। নির্বাচন কমিশন জানিয়েছে, নোটিশের উত্তর সন্তোষজনক নয়। যার জেরে তাঁর নির্বাচনী সভা সোমবার রাত আটটা থেকে মঙ্গলবার রাত আটটা পর্যন্ত বন্ধ ব্যান করা হয়েছে।

এই নিষেধাজ্ঞার মাধ্যমে মমতাকে চূড়ান্ত সতর্ক করা হল বলেও নির্বাচন কমিশনের তরফে জানানো হয়েছে। ভবিষ্যতে তিনি নির্বাচনী প্রচারে যাতে উত্তেজক কোনও কথা না বলেন, যাতে রাজ্যের আইন শৃঙ্খলা ভেঙে পড়তে পারে বলেও নির্বাচন কমিশনের তরফে জানানো হয়েছে। 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here