mamata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: টানা তিনদিন ধরে নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদে কলকাতার রাজপথে নামছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিন ছিল প্রথম দফা। রেড রোড থেকে থেকে শুরু করে জোড়াসাঁকো পর্যন্ত মিছিল করেন তৃণমূল নেত্রী। মিছিলের আগে ও পরে, দু’জায়গাতেই সভা করেন মমতা। বেনজির আক্রমণ করে কেন্দ্রীয় সরকারকে। এ রাজ্যে এনআরসি ও নাগরিকত্ব আইন, দুই-ই লাগু না করার শপথ নেন। আর জোড়াসাঁকো পৌঁছে মমতার আক্রমণের ঝাঁঝ যেন আরও বেড়ে যায়। তবে বারবারই শান্তিপূর্ণভাবে আন্দোলন করার কথা মনে করিয়ে দেন মমতা। কেউ যেন সরকারি সম্পত্তি নষ্ট না করে, সাবধান করেন নেত্রী।

জোড়াসাঁকো পৌঁছে গেরুয়া শিবিরকে তুলোধনা করা শুরু করেন মমতা। বলেন, ‘ওরা কী ভেবেছে? যা খুশি তাই করবে নাকি? বিজেপি নিজেদের আকাশ থেকেও বড় ভাবা শুরু করেছে। আমি যতদিন আছি, এই রাজ্যে নাগরিকত্ব আইন লাগু হতে দেব না। যতক্ষণ না সংশোধিত আইন বাতিল করা হচ্ছে, ততদিন আমরা আন্দোলন চালিয়ে যাব। কিন্তু দয়া করে কেউ ট্রেন, পোস্ট অফিসে আগুন জ্বালাবেন না। রাস্তা অবরোধ করবেন না। মনে রাখবেন, বিজেপির বন্ধুরা টাকা ছড়িয়ে আগুন জ্বালানোর কথা বলছে। ওদের কথায় কান দেবেন না। বাংলায় যদি নাগরিকত্ব আইন লাগু করতে হয় আমার মৃতদেহের ওপর দিয়ে গিয়ে করতে হবে। আমি যতদিন বেঁচে আছি ততদিন এই আইন লাগু হতে দেব না। কেউ ভয় পাবেন না, এখানে নাগরিকত্ব সংশোধিত আইন আমরা লাগু করতে দেব না।’

এদিন দুপুর ১টা থেকে বাবাসাহেব ভীমরাও আম্বেদকরের মূর্তিতে জমায়েত হয়ে গান্ধীমূর্তির পাদদেশ হয়ে তৃণমূলের মিছিল হওয়ার কথা ছিল জোড়াসাঁকো ঠাকুরবাড়ি পর্যন্ত। সেই কথা মতোই মিছিল শুরু করলেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মিছিল শুরু করার আগে তিনি তাঁর কর্মী-সমর্থক এবং মিছিলে উপস্থিত বাকিদের শপথবাক্য পাঠ করান। তারপর শুরু হয় কেন্দ্রীয় আইন নাগরিকত্ব এবং এনআরসি বিরোধী তৃণমূলের মিছিল। শপথবাক্য পাঠ করিয়ে মমতা বলেন, ‘আমরা সবাই নাগরিক। সর্বধর্মসমন্বয়ে আমাদের জীবন আদর্শ। কাউকে বাংলা ছাড়তে দেব না। নিশ্চিন্তে থাকব, শান্তিতে থাকব। বাংলায় এনআরসি, ক্যাব করতে দিচ্ছি না, দেব না।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here