নিজস্ব প্রতিবেদক, বাঁকুড়া: যুবকের মৃত্যুর ঘটনায় বাঁকুড়ার মেজিয়া থানার ঘুষড়া গ্রামে চাঞ্চল্য ছড়াল। গতকাল রাতে স্থানীয় বাসিন্দা শৈলেন মণ্ডল ওই যুবককে বেধড়ক মারধর করেন বলে অভিযোগ। এরপরই অসুস্থ হয়ে পড়ে বীরেশ্বর মণ্ডল নামে ওই যুবক। সকালে তাঁর মৃত্যু হয় বলে জানা গিয়েছে। স্থানীয়দের অনুমান, ত্রিকোণ প্রেমের জেরেই খুন করা হয়েছে তাকে। এই ঘটনায় পুলিশ শৈলেন মন্ডলকে আটক করেছে।

স্থানীয়দের অভিযোগ, বীরেশ্বর মন্ডলের স্ত্রীয়ের সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে সম্পর্ক ছিল স্থানীয় ব্যবসায়ী শৈলেন মন্ডলের। বিষয়টি জানাজানি হতেই সমস্যা তৈরি হয় দুই পরিবারের মধ্যে। গতকাল রাতেও এই বিষয় নিয়ে বীরেশ্বর মন্ডলের সঙ্গে শৈলেন মন্ডলের ঝামেলা বাঁধে। আর সেই সময়ই শৈলেন বীরেশ্বরকে বেধড়ক মারধর করে। গতকাল রাত থেকেই অসুস্থ হয়ে পড়ে বীরেশ্বর মন্ডল। সকালে গ্রামেই বীরেশ্বর মন্ডলের মৃত্যু হয়। বীরেশ্বরের মৃত্যুর খবর জানতে পেরেই গ্রামবাসীরা ব্যবসায়ী শৈলেনের বাড়িতে চড়াও হয়।

মেজিয়া থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে অভিযুক্ত শৈলেন মন্ডলকে আটক করে। মৃতের পরিবারের দাবি, শৈলেন মণ্ডল বীরেশ্বরকে বিষ খাওয়ায় এবং তাকে মারধর করা হয়। মারধরের জেরেই তার মৃত্যু হয়। শৈলেনের সঙ্গে বিবাহ বহির্ভুত সম্পর্কের কথা মেনে নিয়েছেন মৃতের স্ত্রী। অন্যদিকে অভিযুক্তের পরিবারের দাবি, এই খুনের ঘটনায় সে যুক্ত নয়। গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে মেজিয়া থানার পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here