kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: শনিবার বিজেপি শাসিত দু’টি রাজ্যে বিধানসভা ভোটের দিনক্ষণ ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন। আগামী ২১ অক্টোবর হরিয়ানা ও মহারাষ্ট্রে বিধানসভা ভোট অনুষ্ঠিত হবে। ফলাফল ঘোষণা ২৪ অক্টোবর। লোকসভা ভোটে দুর্দান্ত ফলাফলের পর এই প্রথম কোনও রাজ্যে নির্বাচনের সম্মুখীন হচ্ছে বিজেপি। ফলে গেরুয়া শিবিরের আত্মবিশ্বাস যে তুঙ্গে রয়েছে তা নিয়ে কোনও সন্দেহ নেই। অন্যদিকে বাড়তি অক্সিজেন জুগিয়ে চলেছে জম্মু কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা বিলোপের সিদ্ধান্ত। ফলে নির্বাচনের ফলফল যে একপ্রকার বিজেপির পক্ষেই যাবে তা নিয়ে কার্যত নিশ্চিত বিশেষজ্ঞরা।

তবে এই সবের মধ্যে দুই রাজ্যের বিধানসভা ভোট বিরাট চ্যালেঞ্জের সামনে ফেলে দেবে কংগ্রেসকে। গত বছর মধ্যপ্রদেশ, ছত্তিসগড় ও রাজস্থানে নির্বাচনের পর মনে করা হচ্ছিল কংগ্রেস হিন্দিবলয়ে নিজেদের ক্ষমতা ফের বৃদ্ধি করছে। কিন্তু লোকসভা ভোট সেই ‘ভুল’ ভেঙে দেয়। তারপরই আবার দলীয় সভাপতির দায়িত্ব ছাড়েন রাহুল। এই মুহূর্তে সনিয়ার নেতৃত্বের তাই হাত শিবির কী করতে পারে সেদিকে নজর রয়েছে গোটা দেশের।

অন্যদিকে নির্বাচনের দিনক্ষণ ঘোষণা হতেই এর ফলাফল কী হতে পারে তা নিয়ে কাটাছেঁড়া করা শুরু করে দিয়েছে সংবাদ সংস্থাগুলি। এবিপি নিউজ ও সি ভোটার দুই রাজ্যে বিধানসভা ধরে এক জনমত সমীক্ষা চালিয়েছে। যাতে দু’রাজ্যে কংগ্রেস ও বিজেপি কেমন ফল করতে পারে তার আগাম আভাষ মিলেছে। তবে দু’রাজ্যের সমীক্ষায় একটা বিষয় মিল রয়েছে। উভয় রাজ্যেই ফের বিজেপি ফিরে আসার সম্ভাবনাই প্রবল রয়েছে। এবং গেরুয়া শিবিরের উত্থানও স্পষ্ট।

এবিপি নিউজ ও সি ভোটারের সমীক্ষা জানাচ্ছে, ২০১৪ সালের থেকেও বেশি আসন নিয়ে হরিয়ানায় সরকার গঠন করবে বিজেপি। ২০১৪ সালে ৯০ বিধানসভা আসনের রাজ্যে বিজেপি পেয়েছিল ৪৭টি। কংগ্রেস ১৫টি। সমীক্ষা বলছে, অবস্থা আরও খারাপ হবে হাত শিবিরের। ১৫ থেকে ১২-তে নেমে আসতে পারে কংগ্রেস। অন্যদিকে বিজেপি একলাফে ৪৭ থেকে ৭৮টি আসনে পৌঁছে যেতে পারে। অন্যদিকে মহারাষ্ট্রে আসন ভাগের সমীকরণে বিজেপি-শিবসেনা জোট ভোটে লড়ছে। ২৮৮ আসনের রাজ্যে বিজেপি একাই ১৪৪টি ও শিবসেনা ৩৯টি যসন পেতে পারে। কংগ্রেস ও এনসিপি জোট করলেও তাতে কোনও লাভ দেখা যাচ্ছে না। এই দুই দল মিলে বড়জোড় ৪১টি আসন পেতে পারে মহারাষ্ট্রে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here