বিদ্যাসাগর কাছে নিয়ে এলেন বিরোধীদের

0
51
Kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: হায় ঈশ্বর! আজ তুমিও আক্রান্ত৷ তাই শুধু বাংলায় নয়, দেশজুড়ে ঈশ্বর চন্দ্র বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙার প্রভাব দেখা গেল৷ এতটাই যারা কখনো বিদ্যাসাগরের নাম কোনওকালে শোনেনি তাঁদেরও লোকসভা ভোটের শেষ পর্যায়ের আগে বিদ্যাসাগরকে নিয়ে ভাবতে হচ্ছে৷ আর তাই দিল্লিতে বিজেপি নিজেদের বিদ্যাসাগর দরদী প্রমাণ করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে৷ তাঁরা জোর গলায় দাবি করছেন কলকাতায় বিদ্যাসাগর কলেজের ঈশ্বরচন্দ্রের মূর্তি তাঁদের দলের কেউ ভাঙেনি৷ ১৯ মে কলকাতার দুই কেন্দ্রে ভোট৷ বিদ্যাসাগর কাণ্ড যে তাঁর জয়ের আশা কার্যত শেষ করে দিয়েছে তা বিলক্ষন বুঝতে পারছেন উত্তর কলকাতার বিজেপি প্রার্থী রাহুল সিনহাও৷ তাই তাঁকে ভিডিও ছবি ইত্যাদি জোগাড় করে কলকাতায় সাংবাদিক সম্মেলন করে দাবি করছেন তৃণগুন্ডারাই বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভেঙেছে, তাঁরা নন৷

১৯৮ বছরের ঈশ্বর বিদ্যাসাগর কী লোকসভা ভোটের শেষ লগ্নে কংগ্রেস, তৃণমূল ও বামফ্রন্টকে কাছাকাছি নিয়ে এল? এই তিনদল আলাদা আলাদাভাবে বিদ্যাসাগর কাণ্ডে বিজেপির কডা় সমালোচনা করেছেন৷ কংগ্রেস খাতায় কলমে বাংলার প্রধান বিরোধী দল৷ বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙার কড়া সমালোচনা করেছে রাহুলের দল৷ তবে প্রদেশ কংগ্রেস অবশ্য সেইসঙ্গে মমতা প্রশ্রাসনের পুলিশি নিষ্ক্রিয়তা নিয়েও সরব হয়েছে৷ কংগ্রেসের দিল্লি নেতৃত্ব অবশ্য এই বিষয়ে সরাসরি তৃণমূলের পাশে না থাকলেও বিজেপির কড়া বিরেধিতা করেছে৷ বুধবার ট্যুইট করে কংগ্রেসর মুখপাত্র রণদীপ সুরজওয়ালা সাফ জানান, ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর শুধু বাংলার নয় ভারতের আইকন৷ তাঁর মূর্তি ভাঙা মানে বাংলার সঙ্গে ভারতের সংস্কৃতিরো অপমান৷ আমরা বিজেপির এই বর্বরোচিত ঘটনার তীব্র নিন্দা করছি৷ কংগ্রেস নেতা আহমেদ প্যাটেলের ট্যুইট, বিধবা বিবাহ প্রচলন ও নারী স্বাধীনতার অন্যতম প্রবক্তা মনীষী ঈশ্বর বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভেঙে যারা তাঁকে অপমান করেন তাঁদের বুঝতে হবে তাঁরা ভারতের ঐতিহ্য ও সংস্কৃতিকে ধ্বংস করছে৷ নিজেদের দেশপ্রেমিক বলে বডা়ই করা প্রধানমন্ত্রী কে বুঝতে হবে মূর্তি ভেঙে দেশপ্রেম হয় না৷

স্ট্যালিনের পরে এবার মমতাও সরাসরি না বললেও লোকসভা ভোটের পরে প্রধানমন্ত্রী হিসাবে রাহুল গান্ধীকে সমর্থনের ইঙ্গিত দিয়েছেন৷ বিদ্যাসাগর দুই কংগ্রেস কে ফের আরও কাছাকাছি নিয়ে এলেন৷ মমতা একসময় প্রথম ফেডেরাল ফ্রন্টের কথা বলেছিলেন৷ আজকে মুখে অবিজেপ, অ-কংগ্রেসি সরকারের কথা বললেও কংগ্রেস সম্পর্কে এখন আর ততটা আপত্তি নেই তাও বুঝিয়ে দিচ্ছেন বার বার৷ বিজেপির সাংসদ তথা বাংলার নেতা বাবুল সুপ্রিয় ট্যুইট করে এই ঘটনায় তৃণমূলকে সরাসরি দায়ী করেন৷ তাঁর স্পষ্ট অভিযোগ, নিজেরা বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভেঙে এই ঘৃণ্য কাজের দায় বিজেপির ওপর জোর করে চাপিয়ে দিতে চাইছে৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here