ডেস্ক: শহর তথা রাজ্যে পুজোর আমেজ, উৎসবের মতোয়ারা সকলে। কিন্তু এরই মাঝে শোকের ছায়া নামল শহরতলির বাগুইহাটিতে। পরিবারকে ছেড়ে চলে গেলেন দুর্গা সাধু। কিন্তু যেতে যেতেও ‘দুর্গা’ হয়েই রক্ষা করে গেলেন অনেক পরিবার।

বাইপাসের এক বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন বাগুইহাটির বাসিন্দা দুর্গা সাধু। ষষ্ঠীর সন্ধ্যায় ব্রেন ডেথ হয়ে মৃত্যু হয় তার। মৃত্যুর পরই তার পরিবার সিদ্ধান্ত নেয় দুর্গা দেবীর দেহদান করবেন তারা। সেইমতোই সিদ্ধান্ত কার্যকর করা হল মহাসপ্তমীর রাতেই। দুর্গাদেবীর দু’টি কিডনি প্রতিস্থাপিত হবে মুর্শিদাবাদের কাজি আবদুল আলিম এবং খড়দার রামকৃষ্ণ দাসের দেহে। লিভার দেওয়া হল মেদিনীপুরের উত্তম দ্বিবেদীকে। চোখ দান করা হয়েছে একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে। দুর্গাদেবীর চামড়া রাখা হবে এসএসকেএম স্কিন ব্যাংকে।

ইদানিং শহরে অঙ্গ প্রতিস্থাপনের ঘটনা অনেকটাই বেড়েছে। মরণোত্তর দেহদানে উদ্যোগী হচ্ছেন সাধারণ মানুষ। গত ২৩ সেপ্টেম্বরও এইরকমই অঙ্গ প্রতিস্থাপনের ঘটনা ঘটেছিল শহরে। পরপর দেহদানের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন আরও অনেকে। শেষে দুর্গাদেবীর পরিবারের এই অঙ্গদানের সিদ্ধান্তও অন্যের জীবন আরও সুন্দর করে তুলল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here