মহানগর ডেস্ক: ফের সংবাদের শিরোনামে উঠে এল যোগীর রাজ্য। যৌন হেনস্থায় অভিযুক্ত ব্যক্তি জামিন থেকে ছাড়া পেয়েই নির্যাতিতার বাবাকে গুলি করে হত্যা করল। সোমবার উত্তরপ্রদেশের হাথরাসে ঘটনাটি ঘটেছে। নির্যাতিতা স্থানীয় প্রশাসনের কাছে বাবার মৃত্যুর বিচার চেয়েছেন।

জানা যায় ২০১৮ সালে গৌরব শর্মা নামের এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে উত্তরপ্রদেশে হাথরাসের বাসিন্দা তরণীর বাবা অভিযোগ করেন। অভিযোগে তরুণীর বাবা জানান, গৌরব শর্মা তাঁর মেয়েকে যৌন হেনস্থা করেছে। এরপর পুলিশ গৌরবকে গ্রেফতার করে। কিছুদিন জেলও খাটেন। কয়েক মাস পর জামিনে ছাড়া পেয়ে যায় গৌরব শর্মা। তারপর থেকেই প্রতিশোধ নেওয়ার চেষ্টা করেন। সুযোগ পেয়ে যান সোমবার। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, অভিযুক্তের কাকীমা ও স্ত্রী পুজো দিতে মন্দিরে দিতে গিয়েছিলেন, সেই সময় নির্যাতিতার বাবাকে গুলিকে করে হত্যা করল গৌরব।

হাথরাস পুলিশের শীর্ষ আধিকারিক বিনীত জয়সওয়াল বলেন, নির্যাতিতার পরিবার অভিযোগ করার পর থেকেই দুই পরিবারের মধ্যে শত্রুতা তৈরি হয়েছিল। জামিন পাওয়ার পর থেকেই গৌরব চেষ্টা করছিলেন। সোমবার অভিযুক্তের স্ত্রী ও কাকিমা বাড়িতে না থাকায় সুযোগ পেয়ে যান। তিনি পরিবারের কয়েকজন সদস্যকে গিয়ে তরুণীর বাবাকে ডেকে পাঠান। তরুণীর বাবা অভিযুক্তের বাড়ি আসার পরেই তাঁকে গুলি করে হত্যা করেন গৌরব। ঘটনার সঙ্গে যুক্ত সন্দেহে গৌরবের পরিবারের এক সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গৌরব ও বাকিদের খোঁজে তল্লাশি শুরু হয়েছে।

সংবাদমাধ্যমে তরুণী বলেন, প্রথমে আমার ওপর যৌন হেনস্থা করা হয়। এবার আমার বাবাকে গুলি করে হত্যা করল। আমি এর বিচার চাই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here