মহানগর ডেস্ক: রাজ্যসভার বিরোধী দলনেতা গুলাম নবী আজাদকে চোখের জলে বিদায় সংবর্ধনা জানিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। বিরোধী দলের হওয়া সত্বেও বিদায়বেলায় আজাদের ‘ভূয়সী’ প্রশংসা করেন নরেন্দ্র মোদি। কেন্দ্রের বিভিন্ন নীতি নিয়ে রাজ্যসভায় একাধিকবার মোদির বিরুদ্ধে সরব হলেও এবারে নরেন্দ্র মোদির পাল্টা প্রশংসা শোনা গেল আজাদের গলায়। যা নিয়ে শুরু হয়েছে নতুন জল্পনা।

রবিবার জম্মুতে গুজ্জার সম্প্রদায়ের একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে এসে রাজ্যসভার অবসরপ্রাপ্ত সাংসদ প্রধানমন্ত্রীর ভূয়সী প্রশংসা করে বলেন, ‘নরেন্দ্র মোদি দেশের প্রধানমন্ত্রী হয়েও নিজের শিকড়কে কখনও ভুলে যাননি তিনি। তিনি এখনও গর্বের সকনগে নিজেকে চা-ওয়ালা বলেন।’ এরপরেই তিনি বলেন, ‘আমার সঙ্গে নরেন্দ্র মোদির রাজনৈতিক মতপার্থক্য থাকলেও আমি আমি বলছি, জনগণের নরেন্দ্র মোদির থেকে শিক্ষা নেওয়া উচিত। উনি একজন মাটির মানুষ।’

প্রসঙ্গত গত ৯ই ফেব্রুয়ারি রাজ্যসভায় বিদায়ী সংবর্ধনা জানানো হয় বর্ষীয়ান কংগ্রেস নেতা গুলাম নবী আজাদ কে। আজাদের বিদায়বেলায় আবেগপ্রবন হয়ে পড়েন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।আজাদের সঙ্গে বন্ধুত্বের স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে চোখের জল ফেলেন নরেন্দ্র মোদী। তারপর মুচকি হেঁসে বলেন, ‘আপনাকে কিন্তু আমি বিদায় নিতে দেবনা।’

বিদায়বেলায় আবেগপ্রবন মুহূর্তের মাঝেই মোদীর এই মন্তব্য নতুন করে জল্পনার জন্ম দিয়েছে রাজনৈতিক মহলে। দীর্ঘদিন কংগ্রেসের সঙ্গে থাকলেও কংগ্রেসের ‘বিক্ষুব্ধ নেতা’ হিসাবেই পরিচিত ছিল আজাদ। উল্লেখ্য, গত আগস্টেই দলের কাজকর্ম নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করে আজাদ সহ আরও ২৩ জন নেতা সোনিয়া গান্ধীকে চিঠি লেখেন। অভিযোগের তির ছিল মূলত রাহুল গান্ধীর দিকেই।

অন্যদিকে অনুচ্ছেদ ৩৭০ রদের পর কাশ্মীরের অন্য সব বিরোধী নেতাদের গৃহবন্দী করলেও আজাদকে ঘরবন্দী করেনি কেন্দ্র। অন্যদিকে এনডিএ শরিক রামদাস আঠওয়াল বলেছিলেন, ‘কংগ্রেস আজাদকে না ফেরালে আমরা তাকে রাজ্যসভায় ফেরাবো।’ কংগ্রেস আজও আজাদকে রাজ্যসভায় পুনর্বহাল করেনি। এমতাবস্থায় আজাদের মুখে মোদির প্রশংসায় নতুন করে জল্পনা শুরু হয়েছে সব রাজনৈতিক মহলেই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here