নিজস্ব প্রতিবেদক, সিউড়ি: সুন্দরবনের পর এবার বীরভূমের কাঁকরতলা। পাইথন দেখে চলল তাকে নিয়ে মোবাইলে সেলফি তোলার ঝড়। আর তার জেরেই সময়মতো চিকিৎসা না পেয়ে মৃত্যু হল একটি পাইথনের।
জানা গিয়েছে বুধবার রাতে বীরভূম জেলার খয়রাশোলের বাবুইজোড় গ্রামে একটি পাইথনকে রাস্তায় পড়ে থাকতে দেখেন স্থানীয় বাসিন্দারা। খবর যায় বনদপ্তরেও। কিন্তু বনদপ্তরের লোকেরা আসার আগেই পাইথনটিকে নিয়ে চলল মানুষের সেলফি তোলার ঝড়। পাইথনটিকে কেউ গলায় জড়িয়ে, কেউ হাতে তুলে সেলফি তুলতে ব্যস্ত হয়ে পরে। অবশেষে বনদপ্তরের সহযোগিতায় পাইথনটি উদ্ধার হলেও সময়ে চিকিৎসা না পাওয়ায় মারা যায়।

জানা গিয়েছে, বীরভূমের কাঁকরতলা থানা এলাকার বাবুইজোড় গ্রামে এই পাইথনটিকে দেখতে পাওয়া যায়। রাস্তার উপর পড়েছিল পাইথনটি। গ্রামবাসীরা সেটিকে দেখে প্রথমে কাঁকরতলা থানায় খবর দেয়। পরে কাঁকরতলা থানার পুলিশ এসে বনদপ্তরে খবর দেয়। কিন্তু বনদপ্তরের দল আসার আগে যেটুকু সময় ছিল, সেই সময়ের মধ্যে গ্রামবাসীদের মধ্যে নিস্তেজ এবং অসুস্থ পাইথনটিকে নিয়ে কখনো গলায় জড়িয়ে, কখনো টানাটানি করে ছবি তোলার হিড়িক পরে। কোন কারণে পাইথনটি অসুস্থ হয়েছিল, কিন্তু তারপরেও এত টানাটানি বা সেলফির ফলে আরও অসুস্থ হয়েছিল বলে মনে করা হচ্ছে এবং তারপরেই পাইথনটির মৃত্যু হয় বলে অনুমান করা হচ্ছে। বনদপ্তরের তরফে খবর, বৃহস্পতিবার দুপুরে মৃত পাইথনটির ময়নাতদন্ত করা হবে। তারপর বোঝা যাবে কি কারনে মৃত্যু হয়েছে পাইথনটির। অসুস্থ হোক বা মৃত, যাইহোক না কেন, পাইথনটিকে নিয়ে এইভাবে সেলফি তোলা সত্যিই অমানবিকতার পরিচয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here