ডেস্ক: ভারতের হামলার পরেই বৈঠক ডাকা হয়েছিল পাকিস্তানের তরফ থেকে। বিকেলের দিকে পাকিস্তানের তরফ থেকে ভারতকে হুঁশিয়ার করে বলা হয়, সময় সুযোগ বুঝে ভারতকে জবাব দেবে পাকিস্তান। এবার এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর, পাকিস্তানের ভাবনায় এখন চলে এসেছে ‘নিউক্লিয়ার’ অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে চিন্তা ভাবনা। চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণের জন্য ডাকা হয়েছে উচ্চ পর্যায়ের একটি বৈঠক। পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান খোদ এই বৈঠক ডেকেছন বলে জানা গিয়েছে। মঙ্গলবারই এই বৈঠক নিয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছিল সূত্র মারফত জানা গিয়েছে।

এরপর ভারতের পাল্টা হামলার পর সেই মিটিং বা বৈঠকই বাস্তবায়িত হতে চলেছে বলে মনে করা হচ্ছে। গতকাল পাকিস্তানের বিদেশ মন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেসি দাবি করছিলেন, ভারত অহেতুকই এই আক্রমণ চালিয়েছিল। একইসঙ্গে তাদের তরফ থেকে বলা হয়েছে, শুধু মাত্র আসন্ন ভোটের কথা মাথায় রেখে এই পদক্ষেপ নিয়েছে ভারত। যার জবাব দেবে পাকিস্তান। পছন্দমাফিক সময় এবং জায়গা বেছে। পাকিস্তানের জাতীয় সুরক্ষা কিমিটির সঙ্গে আলোচনা করা পর পাক প্রশাসনের ভাবনায় চলে আসে ‘নিউক্লিয়ার’।

উল্লেখ্য, এদিন সকালেই পাকিস্তানের যুদ্ধ বিমান এফ-১৬’কে গুলি করে নামিয়েছে ভারতীয় সেনা। যদিও সেই বিমানের পাইলটের অবস্থা সম্পর্কে এখনও কিছু জানা যায়নি বলেই খবর। পাকিস্তানের তরফ থেকে হামলা চলার আশঙ্কায় ভারতীয় আকাশেও জারি রয়েছে হাই অ্যালার্ট। উল্টো দিকে গতকাল পাকিস্তানের তরফে ভারতের নিয়ন্ত্রণরেখা অতিক্রম করে মর্টার শেল এবং মিসাইল ফেলার ফলে কমপক্ষে পাঁচজন ভারতীয় সেনা জওয়ান গুরুতর আহত হয়েছে। ভারত-পাক সীমান্তে একপ্রকারের ছায়া যুদ্ধ শুরু হয়ে গিয়েছে। আজকের জন্য কাশ্মীর এবং অমৃতসরের সমস্ত উড়ান পরিষেবা বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। একইসঙ্গে সমস্ত স্কুলগুলিকে বন্ধ রাখা হয়েছে এবং পাঁচ কিলোমিটারের মধ্যে থাকা সমস্ত স্কুলের পরীক্ষা স্থগিত রাখার নির্দেশ জারি করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here