ভারতের সঙ্গে যুদ্ধে গেলে হেরে যেতে পারে পাকিস্তান! নিজেই স্বীকার করলেন ইমরান

0
1111
kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: যুদ্ধের জুজু দেখাতে কিছুতেই পিছু হটছেন না পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। জম্মু কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা বিলোপের বিরোধিতা ফের একবার পরমাণু যুদ্ধের উস্কানি দিয়েছেন তিনি। তবে ভারতের সঙ্গে যুদ্ধ লাগলে যে পাকিস্তান কোনও ভাবেই ধোপে টিকবে না সেটা ইমরান খান নিজের মুখেই স্বীকার করে নিয়েছেন। আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম ‘আল জাজিরা’-কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছেন, এমন পরিস্থিতি তৈরি হতে পারে যখন ভারতের সঙ্গে যুদ্ধ লাগতে পারে পাকিস্তানের। কিন্তু ইসলামাবার কখনই পরমাণু যুদ্ধ শুরু করবে না। নিজেকে ‘যুদ্ধবিরোধী’ বলেও দাবি করেছেন তিনি।

‘আমি এটুকু জানি যখন দু’টো পরমাণু শক্তিধর দেশ তথাকথিত যুদ্ধের পথে হাঁটে তখন সবরকম সম্ভাবনা থাকে যে সেটা পরমাণু যুদ্ধতেই শেষ হবে। ভগবান না করুন যদি পাকিস্তান যুদ্ধে যায় এবং হারা শুরু করে, তখন দু’টো উপায় পড়ে থাকবে। হয় আত্মসমর্পণ নতুবা স্বাধীনতার জন্য শেষ নিশ্বাস পর্যন্ত লড়ে যাওয়া। আমি জানি পাকিস্তান স্বাধীনতার জন্য আমৃত্যু চেষ্টা চালিয়ে যাবে, আর যখন কোনও পরমাণু শক্তিধর দেশ মৃত্যুর আগে পর্যন্ত লড়ে যায়, তার পরিণামও ভয়ঙ্কর হয়,’ বলেছেন ইমরান খান।

ইমরান খান মুখে যুদ্ধের কথা বললেও ভেতর থেকে যে ফাঁপা হয়ে রয়েছেন তা তাঁর হারার আশঙ্কাতেই স্পষ্ট। কারণ এই মুহূর্তে জম্মু কাশ্মীরকে কেন্দ্র করে তিনি নয়াদিল্লির ওপর যেভাবে চটে রয়েছেন, তাতে হঠাৎ হঠাৎ যুদ্ধের হুঙ্কার আসাটাও অপ্রত্যাশিত নয়। কিন্তু বাস্তবে যুদ্ধের পথে গেলে তা যে পাকিস্তানের জন্য মোটেই ফলদায়ক হবে না তা বুঝতে পেরেছেন ইমরান।

শুক্রবারই পাক অধিকৃত কাশ্মীরে একটি প্রতিবাদ সভায় অংশ নিয়ে ইমরান বলেছিলেন, কাশ্মীরের বর্তমান পরিস্থিতি আরও বেশি পরিমাণে মুসলিমদের উগ্রপন্থার দিকে ঠেলে দেবে এবং তারা ভারতের বিরুদ্ধে জেহাদ ঘোষণা করবে। যদিও মৌখিক হুমকি ছাড়া এখনও পর্যন্ত কিছুই করে উঠতে পারেনি পাকিস্তান। আন্তর্জাতিক মহলে পুরো সমর্থনই ভারত পেয়েছে। ফলে এখন পরমাণু যুদ্ধ ও অন্যান্য উস্কানিমূলক কথা বলতে শোনা যাচ্ছে পাক প্রধানমন্ত্রীকে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here