ডেস্ক: ‘চুক্তি’ মতো পাকিস্তানের বিরুদ্ধে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ না খেলায় গতবছর বিসিসিআইয়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানিয়ে আইসিসির দ্বারস্থ হয়েছিল পিসিবি। ভারতের থেকে প্রায় ৭০ মিলিয়ন আমেরিকান ডলার ক্ষতিপূরণ চেয়েছিল তারা। কিন্তু পাকিস্তানের ক্রিকেট বোর্ডের সেই দাবি কার্যত নস্যাৎ করে দিয়েছিল আইসিসি। মামলায় জয় হয়েছিল ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের। তারপরই পাল্টা পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের কাছে ক্ষতিপূরণ চেয়ে আইসিসির দ্বারস্থ হয়েছিল ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। সেই মামলায় জয় পেয়েছিলেন ভারতীয় বোর্ডের কর্তারা। যার জেরে এখনও পর্যন্ত ভারতকে প্রায় ১.৬ মিলিয়ন আমেরিকান ডলার (প্রায় এগারো কোটি টাকা) ক্ষতিপূরণ দিয়েছে পাকিস্তান। সোমবার এমনটাই জানালেন পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের চেয়ারম্যান এহসান মানি।

এহসান মানি জানান, ‘ভারত আমাদের বিরুদ্ধে প্রায় ২.৫ মিলিয়ন আমেরিকান ডলার ক্ষতিপূরণ চেয়ে মামলা করেছিল। কিন্তু আইসিসি সেই ক্ষতিপূরণের পরিমাণ কমিয়ে ১.৬ মিলিয়ন আমেরিকান ডলার করে। আমরা সেই হিসেবে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডকে পুরো ১১ কোটি টাকা দিয়েছি।’ মনি দাবি করেন, ওই ক্ষতিপূরণের বিপুল পরিমাণ অর্থ দেওয়া ছাড়াও ভারতকে লিগাল ফিজ এবং যাতায়াত বাবদ ব্যয়ের অর্থও দেওয়া হয়েছে।

 

প্রসঙ্গত, পাকিস্তানের সঙ্গে কোনওরকম দ্বিপাক্ষিক সিরিজ না খেলায় ভারতের বিরুদ্ধে আইসিসিতে অভিযোগ জানায় পাক ক্রিকেট বোর্ড। পাকিস্তানের দাবি, ২০১৫ থেকে ২০২৩ সালের মধ্যে দুই দেশের মধ্যে বেশ কিছু দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলার জন্য মউ স্বাক্ষরিত হয়েছিল। কিন্তু ভারত সেই মউ লঙ্ঘন করায় আর্থিক ক্ষতির মুখে পরে পিসিবি। সেই জন্য ভারতের কাছে ৪৪৭ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দাবি করে পাকিস্তান। যদিও পাকিস্তানের দাবি উড়িয়ে সিওএ প্রধান বিনোদ রাই জানিয়েছিলেন, ‘ভারত ও পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের মধ্যে মউ সাক্ষরিত হয়নি। হ্যাঁ, পাকিস্তান একটি প্রস্তাবনা পত্র পাঠিয়েছিল। কিন্তু মুম্বই হামলার পর দুই দেশের সম্পর্কের অবনতি হয়। ফলে কেন্দ্রীয় সরকারের অনুমতি ছাড়া আমরা পাকিস্তানের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলতে পারি না।’

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here