bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: আইনজীবীদের সঙ্গে ডাক্তারদের দ্বন্দ্ব। আর তার জেরেই লাহোর হাসাপতালের কার্ডিওলজি বিভাগের সামনে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে ২৫০ আইনজীবী। এহেন বিক্ষোভের অন্যতম মাথা আবার পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের ভাইপো হাসান নিয়াজি। অত্যন্ত স্পর্শকাতর এই কার্ডিওলজি বিভাগে আইনজীবীদের বিক্ষোভের জেরে মৃত্যু হয় ৩ রোগীর। সেই মৃত্যুর দায় এসে পড়ল নিয়াজির উপর। ফলস্বরূপ ইমরানের ভাইপোর গ্রেফতারের উদ্দেশে হন্যে হয়ে তাঁর খোঁজে নামল পাকিস্তানী পুলিশ। যদিও এখনও বেপাত্তা নিয়াজি।

সরকারীভাবে জানা গিয়েছে, সমস্যার সূত্রপাত ঘটে এই সপ্তাহের শুরুতে। আইনজীবীদের অভিযোগ, তাঁদের এই সহকর্মীকে মারধর করে ডাক্তারদের একটি দল। এই ঘটনার জেরেই পাল্টা অস্ত্র বন্দুক সহ হাসপাতালে জড়ো হয় প্রায় ২৫০ জন আইনজীবী। পুলিশের সঙ্গে রীতিমতো খন্ডযুদ্ধ হয় তাদের। পরিস্থিতি সামাল দিতে পুলিশ টিয়ার গ্যাস থেকে শুরু করে গোলাগুলি চালাতেও বাধ্য হয়। ঘটনার জেরে আতঙ্কে হাসপাতালে ভর্তি থাকা ৩ রোগীর মৃত্যু হয়। এরপরই আরও উত্তাল হয়ে ওঠে পরিস্থিতি। আইনজীবীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। জানা যায় আইনজীবীদের তরফে এই ঘটনা ঘটানোর মূল কাণ্ডারি ছিলেন ইমরানের ভাইপো হাসান নিয়াজি।

গোটা ঘটনার জেরে নিয়াজির বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগের ভিত্তিতে তাঁকে গ্রেফতার করতে উঠে পড়ে লাগল পাকিস্তান পুলিশ। যদিও, খবর পেয়েই বেপাত্তা ইমরানের ভাইপো। পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, শুক্রবার ইমরানের ভাইপো নিয়াজিকে গ্রেফতার করতে তাঁর বাড়িতে রওনা দিয়েছিল পুলিশ। কিন্তু সেখানে গিয়ে দেখা মেলেনি তাঁর। তবে গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে শীঘ্রই নিয়াজি গ্রেফতার হবে বলে আশ্বাস দিয়েছে পাকিস্তানী পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here