imrankhan rape

মহানগর ডেস্ক:   দেশে ধর্ষণ বাড়ছে। সেই বিষয়ে একটি সাক্ষাৎকারে নিজের মতামত দিতে গিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করলেন ইমরান খান। তিনি ধর্ষণের জন্য মূলত মেয়েদের পোশাককেই দায়ী করেন। এই মন্তব্য প্রকাশ পাওয়া পরেই পাকিস্তান জুড়ে বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে। তীব্র প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন ইমরান খানের প্রথম স্ত্রী জেমাইমা গোল্ডস্মিথ। টুইটারে তিনি জানিয়েছেন, ‘এই ইমরান খানকে আমি চিনি না।’

পাক দূরদর্শনের একটি অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান কার্যত স্বীকার করে নেন, দেশে ধর্ষণের ঘটনা বেড়ে গিয়েছে। তিনি বলেন, ‘পশ্চিমি দেশ থেকে অশালীনতা আসছে। তার জেরেই দেশে ধর্ষণের ঘটনা বেড়ে গিয়েছে। সেই সব অঞ্চলেই ধর্ষণের ঘটনা বেশি, যেখানে শালীনতার অভাব রয়েছে। মেয়েদের পোশাকের জন্যই পাকিস্তানে ধর্ষণের মতো ঘটনা বেড়ে গিয়েছে।’ তিনি বলেন, ‘সমস্ত পুরুষের নিয়ন্ত্রণ ক্ষমতা এক নয়।’ গত বছরও তিনি মহিলাদের নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করে সংবাদের শিরোনামে আসেন। তিনি বলেন, মেয়েদের জন্যই দেশে করোনা ভাইরাস বেড়ে গিয়েছে।  

ইমরান খানের মন্তব্য ঘিরে দেশ জুড়ে তীব্র বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে। তাঁর প্রথম স্ত্রী জেমাইমা গোল্ডস্মিথ বলেন, ‘কোরানে বলা আছে, পুরুষদের উচিৎ চোখ বন্ধ রাখা ও নিজেদের গোপনাঙ্গ নিজেদের নিয়ন্ত্রণে রাখা। এই দায়ভার গোটাটাই পুরুষের।’ এরপরেই তিনি লেখেন, হয়তো এটা ভুল উদ্ধৃতি। তিনি মন্তব্য করেন, ‘আমি যে ইমরান খানকে চিনি, তিনি এই কথা বলতেন। তিনি বিশ্বাস করতেন, পুরুষের চোখে পর্দা থাকুক মেয়েদের নয়।’ ইমরান খানের এই মন্তব্য ঘিরে বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে। তীব্র প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছে পাক মানবাধিকার কমিশন। পাকিস্তানে টুইটারে একাধিক মহিলা ইমরান খানের মন্তব্যের বিরোধিতা করেছেন।  

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here