ডেস্ক: নোটবন্দির একের পর এক ব্যর্থতা ইতিমধ্যেই উঠে এসেছে দেশের সামনে। কিন্তু সময় যত এগোচ্ছে, নোটবন্দির কঙ্কালসার অবস্থা যেন আরও বেশি করে ফুটে উঠছে। সূত্রের খবর, বাতিল ৫০০ এবং ১০০০ টাকার নোট ব্যবহার করে বাজারে চালু নতুন নোটের অবিকল জাল নোট ছাপানোর কাজ শুরু করেছে পাকিস্তান।

ভারতীয় গোয়েন্দা সংস্থা জানিয়েছে, পাক গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআইের মদতে নেপালের পথে পাকিস্তান পৌঁছে যাচ্ছে এই বাতিল নোটগুলি। সেখানের দুটি মুদ্রণ প্রেসে জোরকদমে চলছে জাল ভারতীয় নোট ছাপার কাজ। সূত্রের খবর, পাকিস্তানের করাচি এবং পেশোয়ারে অবস্থিত এই দুটি মুদ্রণ প্রেস।

ভারতীয় তদন্তকারী সংস্থার দাবি, ২০১৬ সালে বন্ধ হওয়া ৫০০ ও হাজার টাকার বাতিল নোটের বান্ডিল খুব অল্প টাকায় নেপাল সীমান্ত থেকে কিনে নিচ্ছে আইএসআই। এরপরই পাহাড় পথে পাক ভূমিতে পৌঁছে জাল নোট তৈরি করা হচ্ছে সেগুলি দিয়ে। নোটবন্দির সময় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী দাবি করছিলেন, বাড়তে থাকা সন্ত্রাসবাদ রুখতে এই পদক্ষেপ নিয়েছেন তিনি। কারণ, এই নোটগুলির নকল সহজেই বানিয়ে ফেলা হচ্ছে এবং সন্ত্রাসী কার্যকলাপ এর ফলে বৃদ্ধি পাচ্ছে। যদিও বলাই বাহুল্য, নোটবন্দি হওয়ার পরও নকল নোটের ক্ষেত্রে লাগাম লাগাতে সক্ষম হয়নি কেন্দ্রীয় সরকার।

তদন্তকারী সংস্থারগুলির অনুমান, পাকিস্তানের প্রিটিং প্রেসে পুরনো নোটগুলি পৌঁছে গেলেও সিকিউরিটি ওয়ার বের কর করতে এখনও সক্ষম হয়নি তারা। একবার এই ওয়ার বের করে নিলেই হুবহু নকল নোট ছাপাতে পারবে পাকিস্তান। গোপন সূত্রের আরও খবর, যেই মুদ্রণ প্রেসে এই নোট ছাপার কাজ হবে, পাকিস্তানের নোটও সেখান থেকেই ছাপা হয়। গোয়েন্দা আধিকারিকদের এই সতর্কবার্তার গুরুত্ব বুঝে ইতিমধ্যেই সীমান্তে নিরাপত্তা বৃদ্ধি করেছে ভারত।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here