আবাস যোজনায় দুর্নীতি ঠেকাতে নয়া নির্দেশিকা পঞ্চায়েত দপ্তরের

0
422
kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: মুখ্যমন্ত্রীর মুখনিসৃত কাটমানি নিয়ে একটা সময়ে বেশ উত্তাল হয়েছিল বাংলা। তারপর থেকে রাজ্যের প্রায় সমস্ত সরকারী প্রকল্পে উঠে এসেছে একের পর এক কাটমানির অভিযোগ। আর এই কাটমানির সবচেয়ে বেশি চল প্রত্যন্ত গ্রামের মানুষের জন্য চালু সরকারী প্রকল্পগুলির। অন্তত তেমনই অভিযোগ উঠেছে তৃণমূলের অন্দরের সমীক্ষায়। সেই সমস্ত জায়গাগুলিতে রাশ টানতে এবার উদ্দ্যোগী হল সরকার। বাংলা আবাস যোজনা প্রকল্পে দুর্নীতি আটকাতে নতুন নির্দেশিকা জারি করা হল পঞ্চায়েত দপ্তরের তরফে। এই প্রক্লপে কাটমানি সংক্রান্ত অভিযোগ সব থেকে বেশি। তার পরিপ্রেক্ষিতে একগুচ্ছ নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে পঞ্চায়েত দপ্তরের তরফে।

জানা গিয়েছে, প্রকল্পের সুবিধা ভোগীদের সরকারি বাড়ি, অনুদানের পরিমাণ নিয়ে যাতে কোন ধোঁয়াশা না থাকে তার ওপর সব থেকে বেশি গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে পঞ্চায়েত দপ্তরের তরফে। পাশাপশি দুর্নীতি ঠেকাতেও নানা পদক্ষেপ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে জেলায় প্রকল্পের দ্বায়িত্বে থাকা আধিকারিকদের। পঞ্চায়েত দপ্তরের ওই নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, বাংলা আবাস যোজনার বাড়ি তৈরির সময় চারবার ছবি তুলে পোর্টালে আপলোড করতে হবে। গরীব মানুষকে ডেকে বোঝাতে হবে কেমন বাড়ি দেওয়া হবে তাকে। উপভোক্তাকে ডেকে বিডিওরা বোঝাবেন বাড়ি কেমন হবে। রান্নাঘর কেমন হবে ইত্যাদি। সর্বোপরি কোনো টাকা নেওয়া যাবে না গরীব মানুষের থেকে। কাটমানির অভিযোগ থেকে মুক্তি পেতেই এই নিয়া নির্দেশিকা বলে মনে করা হচ্ছে।

সরকারী সূত্রে জানা গিয়েছে, বাংলা আবাস যোজনায় ৬ লক্ষ ১৭ হাজার ৪৮২ টি বাড়ি তৈরির পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। বাড়ি সেই বাড়ি তৈরি করতে হবে ১২০ দিনের মধ্যে। ২০২২ সালের মধ্যে রাজ্যে ২২ লক্ষ বাড়ি তৈরি করা হবে বলে পঞ্চায়েত কর্তারা জানিয়েছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here