news bengali

মহানগর ওয়েবডেস্ক: দক্ষিণ কাশ্মীরের কানমোহ গ্রাম থেকে নিখোঁজ পঞ্চায়েত সদস্যকে খুন করা হয়েছে বলে একটি অডিও বার্তা পাঠিয়ে দিল জঙ্গিরা। নিসার আহমেদ ভাট গত ৯ অগস্ট থেকে নিখোঁজ ছিলেন। পুলিশ সূত্রে জানানো হয়েছে, নিরুদ্দিষ্ট ব্যক্তির পরিবারের তরফে বলা হয়, যে বুধবার নিসার আহমেদ ভাট সোপিয়ান যাওয়ার জন্য রওয়ানা হন কিন্তু তারপর থেকেই তার আর কোনও খোঁজ পাওয়া যায়নি।

পুলিশের এক শীর্ষ কর্তা জানিয়েছেন নিরুদ্দিষ্ট ব্যক্তি ‘’পিএসএ আইনে ১৯৯৫ সালে গ্রেফতার হয়। তার বিরুদ্ধে ১২টি এফআইআর রয়েছে। তাকে খোঁজার জন্য পুলিশ এখনও তল্লাশি চালাচ্ছে।‘’ ২ মিনিট ৫৬ সেকেন্ডের যে অডিও ক্লিপটি জঙ্গিদের পাঠানো বলে দাবি করা হচ্ছে তার বিশ্বসযোগ্যতা নিয়ে পুলিশের সন্দেহ রয়েছে বলে জানা গিয়েছে পুলিশ সূত্রে। পুলিশ কর্তা এই প্রসঙ্গে বলেন, ‘’সমস্ত দিক খতিয়ে দেখা হচ্ছে।‘’

সেই অডিও ক্লিপটিতে এক অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তি ‘’আন্দোলনের বিরুদ্ধে কার্যকলাপ’’ চালানোর জন্য নিসার আহমেদকে হত্যা করা হয়েছে বলে দাবি করেছে। বহুদিন ধরে তাকে ধরার চেষ্টা চালানোর পর অবশেষে তারা সফল হয়েছে বলে জানানো হয় অডিও ক্লিপে। এটি অন্যান্য জঙ্গিদের খতম করার বদলা দাবি করে অডিও ক্লিপে বলা হয়, ‘’আমরা পরিবারের বেদনা বুঝতে পারছি। কোভিড–১৯ এর কারণে তার দেহ আমরা পরিবারের হাতে তুলে দিলাম না। ঠিক একই ভাবে ভারতীয় বাহিনী আমাদের সহযোদ্ধাদের হত্যা করে চিহ্নিতহীন স্থানে কবর দিয়েছে।‘’

২ অগস্ট ১৬২ টেরিটোরিয়াল আর্মি ব্যাটলিয়নের সঙ্গে যুক্ত শাকির মনজুর নামে এক জওয়ানকে কুলগাম জেলা থেকে জঙ্গিরা অপহরণ করে। পরে তার গাড়িটিকে দগ্ধ অবস্থায় পাওয়া যায়। অপহরণের খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে পুলিশ এবং সেনাবাহিনী সোপিয়ান এবং কুলগাম অঞ্চলে যৌথ তল্লাশিতে নামে। কিন্তু এখনও পর্যন্ত শাকির মনজুরের কোনও হদিশ পাওয়া যায়নি। কিছুদিন আগে ঠিক একই ধরনের অডিও ক্লিপ পাঠিয়ে জঙ্গিরা জওয়ানকে হত্যা করার এবং চিহ্নিতহীন জায়গায় কবর দেওয়ার সংবাদ দেয়।

গত দু’মাসে দু’জন সরপঞ্চ সহ পাঁচজন বিজেপি নেতাকে হত্যা করার ঘটনা ঘটেছে কাশ্মীরে। জুলাই মাসে অনন্তনাগ জেলায় কংগ্রেসের সরপঞ্চ অজয় পণ্ডিতাকে খুন করে জঙ্গিরা। পরপর রাজনীতির মূল স্রোতের নেতারা খুন হওয়ায় বহু পঞ্চায়েত সদস্য তাদের দল থেকে পদত্যাগ করে। সরকার থেকেও বহু পঞ্চায়েত সদস্য এবং ব্লক সদস্যকে নিরাপদ জায়াগায় স্থানান্তরিত করে দেওয়া হয়। রাজ্যের দায়িত্ব নেওয়ার পর লেফটেন্ট গভর্নর মনোজ সিনহা ঘোষণা করেছেন কাশ্মীরে পঞ্চায়েত সদস্য ও রাজনৈতিক কর্মীদের যথাযথ নিরাপত্তা দেওয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here