ডেস্ক: কিছুদিনের মধ্যেই শুরু হয়ে যাবে ২০১৯ ভোটদানের প্রক্রিয়া। দেশজুড়ে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের ইতিমধ্যেই প্রচার শুরু হয়ে গিয়েছে, অনেকে আবার ভোটে লড়ার জন্য নমিশনও দিয়ে ফেলেছে। তবে চলতি বছরের লোকসভা ভোটে বিজেপির হয়ে ভোটে লড়তে দেখা যাবে না গতবারের সাংসদ উমা ভারতী ও সুষমা স্বরাজকে। শারীরিক অসুস্থতার জন্য ২০১৯-এর লোকসভা নির্বাচনে ভোটের ময়দানে দেখা যাবে না এই হেভিওয়েটদের। এছাড়াও বিজেপির তরফ থেকে লোকসভা ভোটে লড়ার জন্য টিকিট দেওয়া হয়নি বিজেপির বর্ষীয়ান নেতা মুরলী মনোহর যোশী, লালকৃষ্ণ আদবানী, শত্রুঘ্ন সিনহাদের।

কার্যত সেভাবে চমক না দিয়ে বিজেপির প্রার্থী তালিকা প্রকাশ পেয়েছে কিছুদিন আগে। যদিও এখনও কিছু প্রার্থী তালিকা প্রকাশ্যে আসতে বাকি আছে বলে জানা গিয়েছে। কিন্তু তাঁর আগেই বড় ধাক্কা বিজেপিতে। সূত্র মারফত জানা গিয়েছে, চলতি লোকসভা নির্বাচনে ভোটের ময়দানে নামছেন না অভিনেতা ও বিদায়ী সাংসদ পরেশ রাওয়াল। এদিন তিনি এক সাক্ষাৎকারে স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন চলতি লোকসভা নির্বাচনে ভোটে না লড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি। গতবারের লোকসভা নির্বাচনে গুজরাটের আমেদাবাদ আসন থেকে ভোটে দাঁড়িয়েছিলে এই কিংবদন্তি অভিনেতা। কিন্তু এবার তিনি আর ভোটে লড়তে চাইছেন বলেই জানা গিয়েছে।

 

পরেশ জানিয়েছেন, ”আমি দলের শীর্ষ নেতাদের চার মাসে আগেই জানিয়েছিলাম এই বিষয়টি। এরপর দল যা সিদ্ধান্ত নেবে আমি মাথা পেতে নেব।” যদিও বিজেপির প্রকাশিত প্রথম প্রার্থী তালিকাতে পরেশের নাম দেখা যায়নি। তাহলে এটাই ধরে নেওয়া যেতে পারে চলতি লোকসভা নির্বাচনে প্রার্থী হচ্ছেন না পরেশ। কিন্তু রাজনৈতিক মহলের একাংশের দাবি, মূলত তাঁর লোকসভা এলাকাতে সাংসদ ফান্ডের টাকা খরচ না করতে পারায় ও লোকসভাতে গড়হাজির থাকায় বিজেপির অন্দরেই কিছুটা খুব জমা হয়েছিল। সূত্রের খবর, চলতি নির্বাচনে আহমেদাবাদ আসন থেকে ভোটে দাঁড়ালে হয়ত পরেশের হেরে যাওয়ার সম্ভাবনাটিও প্রবল রয়েছে দাবি রাজনৈতিক মহলের একাংশের।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here