kolkata bengali news

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: করোনা পরিস্থিতিতে কোনভাবেই দলীয় কর্মীদের বাড়াবাড়ি সহ্য করা হবে না। খাদ্যশস্য দোকান থেকে তুলে বিলি করা যাবে না। সাধারণ মানুষের জন্য বরাদ্দ খাদ্যশস্য জনসাধারণের কাছেই যাতে পৌঁছায় সেই ব্যাপারটি নিশ্চিত করতে হবে। দলীয় নেতৃত্ব প্রতিটি স্তরে এই মর্মে নির্দেশ দিল তৃণমূল। শুক্রবার এমনটাই জানান তৃণমূল কংগ্রেসের এক শীর্ষ নেতা।

দলীয় সূত্রের দাবি, রাজ্যের বিভিন্ন রেশন দোকান থেকে খাদ্যশস্য তুলে নিয়ে যাচ্ছেন দলের কিছু নেতা-নেত্রী। ফলে সরকার যতই ব্যবস্থা করুক না কেন সাধারণ মানুষের অভাব সেই থেকেই যাচ্ছে। এই অবস্থায় মুখ্যমন্ত্রী দলের রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সিকে দায়িত্ব দেন বিষয়টি খতিয়ে দেখার। সুব্রত বাবু তদন্ত শুরু করার পরেই তাঁর কাছে প্রচুর অভিযোগ আসে। তারই প্রেক্ষিতেই অভিযুক্ত ওই সমস্ত নেতা-নেত্রীদের নিজে ফোন করে কড়া নির্দেশ দিচ্ছেন দলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

তৃণমূল সূত্রের খবর, বর্তমানে সমগ্র পরিস্থিতি খতিয়ে দেখছেন খোদ পার্থ চট্টোপাধ্যায়। বিভিন্ন জেলা সভাপতি, জেলা পরিষদের সভাধিপতিদের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রাখছেন তিনি। এছাড়াও যুব নেতৃত্বদের সঙ্গেও যোগাযোগ রাখা হচ্ছে ফোনের মাধ্যমে। জানা গিয়েছে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের কড়া নির্দেশ, পরিস্থিতি যাই হোক না কেন, কোনওরকম অনিয়মের পথে যেন এলাকার নেতাকর্মীরা না হাঁটেন।

প্রসঙ্গত, কলকাতায় করোনার থাবা বসতেই শুরু হয়ে যায় মাস্ক সহ হ্যান্ড স্যানিটাইজার এর কালোবাজারি। এই কালোবাজারি রুখতে ইতিমধ্যেই তৎপর হয়েছে রাজ্য সরকার। অন্যদিকে সাধারণ মানুষের কাছে খাদ্যশস্য এবং নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিস সহজলভ্য করে দিতে চায় রাজ্য সরকার। প্রায় সর্বক্ষেত্রেই ত্রাতার ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছেন স্বয়ং রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু তৃণমূলেরই একশ্রেণীর নেতা নেত্রীর বিরুদ্ধেই রেশনের চাল-ডাল নিয়ে উঠেছে ঘোরতর অভিযোগ। এই অবস্থায় হাল ধরতে মাঠে নামলেন স্বয়ং দলের মুখ্যসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here