নিজস্ব প্রতিবেদক, ঝাড়গ্রাম ও ব্যারাকপুর: ‘যারা সমাজকে ভাগ করার চেষ্টা করছে তাদের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ ভাবে লড়াই করে তাদেরকে রুখে দিতে হবে। ২০১০এ জঙ্গলমহল কোথায় ছিল আর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের চেষ্টায় তাকে কোথায় এগিয়ে নিয়ে গিয়েছে সেটা নিজেরাই দেখুন। আদিবাসী ছেলেমেয়েরা, বিশেষ করে মেয়েরা কখনো ভাবতে পেরেছিল তাদের জন্য স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়, যাতায়াতের জন্য রাস্তা, পানীয় জল, স্কুল যাওয়ার জন্য সাইকেল, বই, খাতা দেওয়া সহ এই জঙ্গলমহলের সার্বিক উন্নয়ন করে দেখাবে কেউ। তাই আমি এই জঙ্গলমহলকে বলছি ‘সুখীমহল’। এই সুখীমহলকে ভাঙবার চেষ্টা হচ্ছে।’ ঝাড়গ্রামে হুলদিবসের অনুষ্ঠানে এসে শুক্রবার একথাই বললেন রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী তথা তৃণমূল কংগ্রেসের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

পঞ্চায়েত নির্বাচনে ঝাড়গ্রামের ফলাফল কি শাসক দলেকে চাপ সৃষ্টি করেছে -এই প্রশ্নের জবাবে পার্থ বাবু বলেন,’আমাদেরকে কোথাও কোনও চাপ সৃষ্টি করেনি। আপনারা ঝাড়গ্রামের ফলাফল পর্যালোচনা করে দেখুন। চাপ সারা পশ্চিমবঙ্গে কোথাও নেই। চাপ শুধু একটাই, উন্নয়নকে ব্যাহত করার চেষ্টা চলছে। সেটাই মানুষকে বোঝাতে হবে, কোনও ভাবে উন্নয়নকে ব্যাহত হতে দেওয়া যাবে না। আমাদের উপর কিছু মানুষ অভিমান করেছিল। কিন্তু কেউ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ছেড়ে যায়নি।’ শিক্ষামন্ত্রী এদিন আরও বলেন,’কিছু লোক বলেন দুটাকা কেজি চাল নাকি কেন্দ্র