kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি: দল জিতেছে। আর সেই আনন্দ উদযাপন করার জন্য বসানো হয়েছিল মদ্যপানের আসর। সেখানে ডেকে নিয়ে যাওয়া হয় এক তৃণমূল কর্মীকে। তারপর ওই তৃণমূল কর্মীর মাথায় কোপ মারা হয় বলে অভিযোগ। এই ঘটনায় অভিযোগের তির দলের অন্য পক্ষের দিকে। নদিয়ার শান্তিপুর ব্লকের হরিপুর পঞ্চায়েতের অন্তর্গত চাঁদকুড়ি গ্রামের ঘটনা। জানা গিয়েছে, গতকাল বিকেলে গঙ্গার ধারে বাঁশ বাগানে একটি মদ্যপানের আসরে ডেকে নিয়ে গিয়ে ওই তৃণমূল কর্মী মাথায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপ মারে ওই এলাকারই অপর এক তৃণমূল কর্মী। আহত করিম শেখ জানান, তার পাড়ারই তৃণমূল কর্মী কলিম মির্জা তাকে হঠাৎই মাথায় কোপ মারে। তার সঙ্গে আরও কয়েকজন ছিল। যাদের প্রত্যেককে আমি চিনি।

ঘটনার পর বিকালে শান্তিপুর স্টেট জেনারেল হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসার পর তাঁকে কৃষ্ণনগর সদর হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। কোভিড পরিস্থিতির কারণে গতকালই তাকে ছুটি দিয়ে দেওয়া হয় হাসপাতাল থেকে। গতকাল চিকিৎসা নিয়ে সকালে ব্যস্ত থাকার কারণে থানায় লিখিত অভিযোগ করা সম্ভব হয়নি। পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়, আজ তারা প্রশাসনের দ্বারস্থ হতে চলেছে।

এলাকা সূত্রে জানা যায়, ওই গ্রামের তৃণমূলের পঞ্চায়েত সদস্য মিলন হোসেনের একান্ত ঘনিষ্ঠ করিম শেখ। অভিযুক্ত করিম মির্জা লোকসভা ভোটে বিজেপির হয়ে প্রচার করলেও এবার তৃণমূলের হয়ে প্রচার করে। কিন্তু, কেন সে এই আক্রমণ করল তা জানা যায়নি। রাজনৈতিক না ব্যক্তিশত্রুতা আছে এই ঘটনার পেছেন, তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ। অভিযুক্ত করিম মির্জা পলাতক বলে জানা গিয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here