মহানগর ওয়েবডেস্ক: দেশ জুড়ে চিনা পণ্য বয়কটের জেরে আসন্ন আইপিএল থেকে সরে গিয়েছে মূল স্পনসর ভিভো। বিসিসিআই এখন ইভেন্টের জন্য নয়া টাইটেল স্পনসর খুঁজছে। স্পনসরশিপের দৌড়ে আচমকাই উদয় হল বাবা রামদেবের পতঞ্জলি।

জানা গিয়েছিল ই-কমার্স জায়ান্ট অ্যামাজন, লার্নিং অ্যাপ বাইজু, আনঅ্যাকাডেমি, ড্রিম ইলেভেন ও মাই সার্কেল ইলেভেন, বহুজাতিক পানীয় সংস্থা কোকা-কলা স্পনসরশিপের দরপত্র জমা দিতে পারে। এর মধ্যেই দৌড়ে চলে এল পতঞ্জলি।

রামদেবের সংস্থার মুখপাত্র এস কে তিজারাওয়ালা ‘ইকনমিক টাইমস’কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, ‘‘আসন্ন আইপিএলে আমরা টাইটেল স্পনসর হতে চাই। গোটা বিশ্বে পতঞ্জলি ব্র্যান্ডের বাজার তৈরি করাই আমাদের লক্ষ্য।’’
খবরটা শুনে টুইটারাত্তিরা হাসিতে ফেটে পড়েছেন। কয়েক’টি টুইট দেখলেই বোঝা যাবে যে, দেশের অগ্রগণ্য এফএমসিজি নিয়ে তাঁদের ধারনা।

অন্যদিকে বিসিসিআই সুপ্রিমো সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের কাছে ৪০০ কোটির স্পনসর হারানোটা বড় কোনও ব্যাপার নয়। একটি লাইভ চ্যাটে এমনটাই জানিয়েছেন বোর্ড প্রেসিডেন্ট। সৌরভ বলছেন, “এটা ছোট একটা সমস্যা। বিসিসিআই অন্যন্ত শক্তিশালী প্রতিষ্ঠান। অতীতে খেলা থেকে শুরু করে প্লেয়ার ও প্রশাসকরা মিলে খেলাটা এত শক্তিশালী জায়গায় নিয়ে গিয়েছে যে, বিসিসিআই এসব ছোটখাটো সমস্যা অনায়াসে সামলে নেবে।”

সৌরভ এও জানিয়ে দিলেন যে, বোর্ডের বিকল্প রাস্তাও তৈরি আছে। তাঁর সংযোজন, “বিচক্ষণ মানুষ, ব্র্যান্ড এবং কর্পোরেট সবসময় প্ল্যান এ ও প্ল্যান বি নিয়ে চলে। বিসিসিআইও সেটাই করে। পেশাদারি দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে কড়া হাতে সবটা করতে হয়। রাতারাতি বড় জিনিস হয় না কিংবা চলেও যায় না। দীর্ঘ সময়ের প্রস্তুতিতে হারানোর পাশাপাশি সাফল্যও থাকে।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here