মহানগর ওয়েবডেস্ক: চলতি মাসের শুরুতেই পতঞ্জলি সিইও আচার্য বালকৃষ্ণ দাবি করেছিলেন, করোনা ভাইরাসের প্রতিরোধী ওষুধ আবিষ্কার করে ফেলেছেন তারা। সেই মতোই মঙ্গলবার করোনা প্রতিরোধী আয়ুর্বেদিক ওষুধ প্রকাশ্যে আনল বাবা রামদেবের পতঞ্জলি।

পতঞ্জলির এই করোনা প্রতিরোধী আয়ুর্বেদিক ওষুধের নাম করোনিল। এই ওষুধ যেসব করোনা আক্রান্তের ওপর ব্যবহার করা করা হয়েছে, তারা নাকি সকলেই সুস্থ হয়ে উঠেছেন বলে দাবি বাবা রামদেবের। অশ্বগন্ধা, গুলঞ্চ ও তুলসীর মিশ্রণে তৈরি করা হয়েছে এই করোনা প্রতিরোধী ওষুধ।

এই ওষুধের বাজারে আনার কথা গতকালই ট্যুইট করে জানিয়েছিলেন আচার্য বালকৃষ্ণ। ‘গর্বের সঙ্গে জানাচ্ছি আগামীকাল যোগপীঠ হরিদ্বারে করোনা প্রতিরোধে প্রমাণিত আয়ুর্বেদিক ওষুধ করোনিল আমরা সর্বসমক্ষে আনতে চলেছি।’

সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে এই প্রসঙ্গে জানিয়েছিলেন, ‘করোনা সংক্রমণের পরেই আমরা কিছু বিজ্ঞানীকে নিযুক্ত করি। সবার প্রথমে শরীরে এই ভাইরাসের সংক্রমণ আটকাতে পারে এমন কিছু জৈবিক দ্রব্য তারা চিহ্নিত করেন। তারপর ওষুধ তৈরি করে ১০০ জন করোনা রোগীর ওপর প্রয়োগ করি। সফলতার হার ১০০ শতাংশ।’

‘আমাদের এই ওষুধ সেবন করলে একজন রোগী ৫-১৪ দিনের মধ্যে সুস্থ হয়ে উঠবেন। ফলে আয়ুর্বেদের মাধ্যমে করোনার প্রতিকার সম্ভব। আমরা নিয়ন্ত্রিত মেডিক্যাল ট্রায়াল করেছি। তার ফলাফল শীঘ্রই জনসমক্ষে আনা হবে’, যোগ করেন পতঞ্জলি সিইও আচার্য বালকৃষ্ণ। এর পাশাপাশি, দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধির জন্যই সকলকে যোগব্যায়াম করার উপদেশও দেন তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here