kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: শহর কলকাতায় কলকাতায় এখনও ফণী আছড়ে না পড়লেও, আতঙ্কেই হাল খারাপ শহরবাসীর। এসবের মাঝেই কোনও রকম আগাম নির্দেশ ছাড়াই বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল একাধিক লোকাল ট্রেন। তার ফলে রীতিমতো নাস্তানাবুদ হতে হয়েছে নিত্যযাত্রীদের আর সেই ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ দেখা গিয়েছে শিয়ালদহ সহ উত্তর ও দক্ষিণ শাখার একাধিক স্টেশনে। সেই পরিস্থিতি সামাল দিতে এবার মাঠে নামলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

রেল সূত্রে জানা গিয়েছে, যে সমস্ত ট্রেন গুলি বাতিল করা হয়েছিল তার মধ্যে ছিল, শিয়ালদহ, ক্যানিং, লক্ষ্মীকান্তপুরের আপ ডাউন একাধিক ট্রেন। শিয়ালদহ উত্তর শাখাতেও বারাসত ও হাসনাবাদের একাধিক ট্রেন। বাতিল তালিকায় জানা গিয়েছে, ৮টি শিয়ালদহ-ক্যানিং লোকাল, ৭টি ক্যানিং-শিয়ালদহ, ৬টি শিয়ালদহ-ডায়মন্ড হারবার লোকাল, ৪টি ডায়মন্ডহারবার-শিয়ালদহ, ৮টি শিয়ালদহ-লক্ষ্মীকান্তপুর, ৬টি লক্ষ্মীকান্তপুর-শিয়ালদহ। পাশাপাশি, শিয়ালদহ-বারাসত-হাসনাবাদ শাখায় বাতিল করা হয়েছে ১০টি লোকাল ট্রেন। এই তালিকাতেই রয়েছে বারুইপুর-লক্ষ্মীকান্তপুর লোকালও। যদিও রেলের তরফে জানা গিয়েছে, পূর্ব রেলের হাওড়া শাখাতে কোনও ট্রেন বাতিল করা হয়নি। ঘটনার জেরে, বাড়ি ফিরতে না পেরে বারাসতে রেল অবরোধ করেন হাসনাবাদ শাখার যাত্রীরা। এহেন পরিস্থিতেই রেলের সঙ্গে যোগাযোগ করে বেশ কিছু ট্রেন চালানোর জন্য আবেদন করা হয় রেলকে। তার আবেদনের ভিত্তিতেই চালু করা হয় বহু বাতিল ট্রেন।

তবে ট্রেন চালু হলেও পরিস্থিতি কিন্তু স্বাভাবিক হয়নি। দীর্ঘক্ষণ ট্রেন বন্ধ থাকার জেরে ব্যাপক ভিড় হয় উত্তর ও দক্ষিণ শাখার ট্রেনগুলিতে। জানা গিয়েছে ভিড়ের জেরে বহু মানুষ উঠতেই পারছেন না ট্রেনে। এদিকে রেল সূত্রে জানা গিয়েছে, ফণীর জেরে শুধু আজ নয়, প্রয়োজনে কালও বতিল করা হতে পারে বহু ট্রেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here