নিজস্ব প্রতিবেদক, কোচবিহার: সেটেলমেণ্ট ক্যাম্পে পুলিশি নিরাপত্তা সহ বিভিন্ন দাবিতে কোচবিহারের জেলাশাসক এর সামনে অবস্থানে বসল ছিটমহল বিনিময়ের ফলে ওপার থেকে আসা সেটেলমেন্ট ক্যাম্পের বাসিন্দারা। মঙ্গলবার সকাল থেকে ওই ক্যাম্পের বাসিন্দারা অনশনে বসে। তাদের অভিযোগ, ক্যাম্পে পুলিশি নিরাপত্তা না থাকায় দুস্কৃতীরা এসে থাকছে। মাস দুয়েক আগে বাংলাদেশ থেকে আসা এক যুবক ওই ক্যাম্পের নাবালিকাকে নিয়ে পালিয়ে গেছে। তার খোঁজ মেলেনি। ওই নাবালিকাকে ফেরাতে হবে। এইসব দাবিতে অনশনে বসা হয়েছে।

জানা গিয়েছে, ২০১৫ সালের ৩১ জুলাই ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে ছিটমহল বিনিময় হয়। এরফলে ওপার থেকে হাজার খানেক সাবেক ভারতীয় ছিটের বাসিন্দা সীমান্ত পেরিয়ে এপারে আসে। তারা বিভিন্ন সেটেলমেন্ট ক্যাম্পে রয়েছে। এই ক্যাম্পে এখন বহিরাগত দুস্কৃতীদের আশ্রয়স্থল হয়ে উঠছে বলে অভিযোগ। এই শিবির গুলিতে আগে পুলিশ ক্যাম্প থাকলেও এখন পুলিশ ক্যাম্প নেই। ফলে বহিরাগতদের আনাগোনা বাড়ছে। গত জুন মাসের প্রথম সপ্তাহে এই ক্যাম্প থেকে এক নাবালিকা নিখোঁজ হয়ে যায়। পরে জানা যায় অবৈধভাবে ক্যাম্পে থাকা এক বাংলাদেশি যুবক ওই নাবালিকাকে নিয়ে পালিয়ে গেছে। পুলিশি অভিযোগ জানানো হলেও কোন ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে না বলে ওই নাবালিকার পরিবারের অভিযোগ।

এছাড়া ক্যাম্পের বাসিন্দাদের স্থায়ী কর্মসংস্থানের দাবিতে মঙ্গলবার সকাল থেকে কোচবিহার জেলাশাসকের দপ্তরের সামনে