Home Featured মৃত্যুকালেও কর্তব্যে নির্ভীক ও অবিচল!আফগানিস্তানে সংঘর্ষে নিহত পুলিৎজার জয়ী চিত্রসাংবাদিক দানিশ সিদ্দিকী

মৃত্যুকালেও কর্তব্যে নির্ভীক ও অবিচল!আফগানিস্তানে সংঘর্ষে নিহত পুলিৎজার জয়ী চিত্রসাংবাদিক দানিশ সিদ্দিকী

0
মৃত্যুকালেও কর্তব্যে নির্ভীক ও অবিচল!আফগানিস্তানে সংঘর্ষে নিহত পুলিৎজার জয়ী চিত্রসাংবাদিক দানিশ সিদ্দিকী
Parul

মহানগর ডেস্ক: দিল্লীর দাঙ্গা থেকে কাশ্মীরের অস্থিরতা কিংবা করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে জ্বলতে থাকা চিতার স্তুপ। একের পর এক ছবি তুলে বিতর্ক তথা প্রশংসার শিরোনামে এসেছিলেন চিত্র সাংবাদিক দানিশ সিদ্দিকী। সম্প্রতি আফগানিস্তানে তালিবান ও সরকারের গৃহযুদ্ধে সংবাদ সংস্থা রয়টার্সের হয়ে ছবি তুলতে গেছিলেন। আর সেখানেই কান্দাহার অঞ্চলে তালিবান ও সেনাবাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষের ছবি তুলতে গিয়ে প্রাণ হারালেন দানিশ। তাঁর প্রয়াণে সাংবাদিক মহলে নেমে এসেছে শোকের ছায়া।

সাংবাদিক জীবনে দায়িত্বে ও নিষ্ঠায় অবিচল ছিলেন। কোনো ভয় ছাড়াই ঘটনাস্থলে ঝাঁপিয়ে পড়ে দেশের নানা ঘটনা থেকে আবেগ ও সত্যের প্রতিচ্ছবি ধরে আনতেন তাঁর ক্যামেরায়। কাশ্মীরের অস্থিরতার সময় যেখানে সংবাদ মাধ্যমের ক্যামেরা এক প্রকার নিষিদ্ধই হয়ে গিয়েছিলো সেখানে কাশ্মীরের প্ৰকৃত ছবি তুলে এনেছিলেন। গত বছর লকডাউনে তাঁর হাতে তোলা পরিযায়ী শ্রমিক বাবা ও তার পিঠে তার শিশুর করুণ ছবি একপ্রকার লকডাউনের পরিযায়ী শ্রমিক ও তাদের সমস্যার প্রতীক হয়ে উঠেছিল। আর এই কারণেই তাকে সরকার এবং নানা পক্ষেরই সমালোচনা শুনতে হয়েছে। নির্ভিক ও প্রতিভাবান এই চিত্রসাংবাদিকের চমকপ্রদ ও দুঃসাহসিক ছবি তাঁকে এনে দিয়েছিল সাংবাদিকতার ‘নোবেল’ নামে খ্যাত পুলিৎজার সম্মান।

মৃত্যর সময়েও তাঁর দায়িত্বে অবিচল ছিলেন তিনি। ভয় পাননি আফগানিস্তানের তালিবানের গ্রেনেড,গুলি কিংবা রকেট লঞ্চারকে। আমেরিকার প্রস্থানে আফগানিস্তানের পরিস্থিতি,সেখানকার সাধারণ মানুষের পরিস্থিতি ও যুদ্ধের প্ৰকৃত ছবি ভেতর থেকে তুলে এনে পৃথিবীর সামনে রাখতে চেয়েছিলেন। হবেনাই বা কেন! একজন প্রকৃত চিত্রসাংবাদিকের তো এটাই কর্তব্য। দুদিন আগেই খুব ভাগ্যের জোরে একটি সংঘর্ষ কভার করতে গিয়ে প্রাণের জোরে বেঁচেছিলেন। নিজের টুইটার হ্যান্ডেল পোস্ট করেছিলেন সেই ছবি। তবে শেষ রক্ষা হয়নি। যুদ্ধের ছবি তুলতে গিয়ে তালিবান ও সেনাবাহিনীর গোলাগুলির মাঝে পরে যান। আর তাতেই প্রাণ হারান সংবাদের এই একনিষ্ঠ ও কর্তব্যপরায়ন এই সাংবাদিক। শোকের ছায়া দেশের সাংবাদিক মহলে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here