bengali news

 

মহানগর ডেস্ক: তিনজন পকেটমার৷ আর তাদের অপকর্মের দোসর একজোড়া বাঁদর৷ দুটো বাঁদরকে কাজে লাগিয়ে অভিনব পন্থায় ছিনতাই ও পকেটমারি করে অবশেষে দিল্লি পুলিশের জালে পাকড়াও হল দুই কীর্তিমান যুবক৷ জানা গিয়েছে, প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত দুটো বাঁদরকে কাজে লাগিয়ে অনেকদিন ধরেই পথচলতি মানুষের টাকা-পয়সা, সোনা-দানা হাতিয়ে নিয়ে চম্পট দিত তারা৷ আজ শুক্রবার দুই পকেটমার বন্ধুকে চিরাগ বাসস্ট্যান্ড থেকে গ্রেফতার করল দিল্লি পুলিশ৷ তবে তাদের গ্যাংয়ের আরও এক সক্রিয় সদস্য পলাতক৷ তার খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ৷ সপ্তাহ খানেক আগে প্রথম এই চক্রের কথা জানতে পারে পুলিশ৷

ঘটনার বিবরণে প্রকাশ, ২ মার্চ প্রথম ওই কেপমারি টিমের বিরুদ্ধে পুলিশে অভিযোগ দায়ের করেন এক আইনজীবী৷ তাঁর অভিযোগ ছিল, দুটো বাঁদরকে লেলিয়ে দিয়ে তাঁকে কার্যত ঘেরাও করে ৬ হাজার টাকা হাতিয়ে চম্পট দেয় তিন ছিনতাইবাজ যুবক৷ তিনি একটা অটোতে করে যাচ্ছিলেন৷ অটো রিক্সটা একটা স্ট্যান্ডে দাঁড়ালে আচমকাই একজোড়া বাঁদর নিয়ে তাঁকে ঘিরে ধরে তিনজন৷ তাঁর সামনের সিটে দু-দুটো বাঁদর বসে পড়ায় কিংকর্তব্যবিমূঢ় হয়ে যান ওই আইনজীবী৷ অল্পক্ষণ পর সম্বিত ফিরতে তিনি বুঝতে পারেন তাঁর পকেটে থাকা ৬ হাজার টাকা সহ উধাও পার্সটা৷ কিছু বুঝে ওঠার আগেই চোখের পলকেই ঘটে পুরো ঘটনাটা৷

এ প্রসঙ্গে দিল্লির ডেপুটি পুলিশ কমিশনার আতুল কুমার জানান, মালব্যনগর থানায় ৩৯২ ধারায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে৷ অভিযুক্ত দুই ছিনতাইবাজকে গ্রেফতার করা হয়েছে৷ একজন পলাতক৷ বাঁদর দুটোকে ওয়াইল্ড লাইফ এসওএস সেন্টারে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে৷ একইসঙ্গে বন্যপ্রাণ সংরক্ষণ আইনেই অভিযোগ আনা হয়েছে৷ পুরো বিষয়টাকে অভিনব এবং অবিশ্বাস্য বলে অভিহিত করেছেন তিনি৷ কীভাবে ওই ধুরন্ধর দুই পকেটমারকে পাকড়াও করা হল, সে প্রসঙ্গে ডেপুটি কমিশনার জানান, আগে থেকেই খবর ছিল৷ সেই মতোই জাল বিছানো হয়েছিল৷ অভিযোগ পাবার এক সপ্তাহ পর সেই জালেই ধরা পড়ে শ্রীঘরে গেল দুই কীর্তিমান৷ জেরায় ধৃত দুই যুবক জানিয়েছে, দিল্লির তুঘলকাবাদ কেল্লা এলাকার জঙ্গল থেকে মাস তিনেক আগে বাঁদরজোড়াকে ধরেছিল পকেটমার ত্রয়ী৷ তারপর অনেক কসরত করে তাদেরকে প্রশিক্ষণ দিয়ে এই কাজে লাগানো হয়৷   

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here