মহানগর ওয়েবডেস্ক: সংসদ অধিবেশনের দ্বিতীয় দিনে যথেষ্ট আক্রমনাত্মক ছিলেন তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়েন। তৃতীয় দিনেও সেই রণমূর্তি বজায় রাখলেন তিনি। ইন্ডিয়ার আক্রমণের নিশানা হয়েছিল করোনা পরিস্থিতিতে মোদী সরকারের তৈরি পিএম কেয়ারস ফান্ড। তৈরি ওই ফান্ডকে এদিন তিনি ‘কেয়ারলেস ফান্ড’ বলে আখ্যা দিলেন। পাশাপাশি এটাও জানালেন, সংকটের এই সময়ে রাজ্য সরকার গুলির সঙ্গে সহযোগিতামূলক সম্পর্ক রেখে কাজ করা উচিত কেন্দ্রীয় সরকারের।

বুধবার সংসদ ভবনে দাঁড়িয়ে তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়েন বলেন, ‘করোনার মত কঠিন পরিস্থিতিতে লড়ার জন্য সরকারের উচিত রাজ্য সরকার গুলির সঙ্গে সহযোগিতামূলক হাত বাড়িয়ে চলা। গণতন্ত্রকে নিরঙ্কুশ শাসনের পর্যায়ে এনে ফেলাটা কখনোই কাম্য নয়।’ পাশাপাশি লকডাউন পরিস্থিতিকে নোট বন্দির সঙ্গে তুলনা করে তিনি আরো বলেন, এই পরিস্থিতিকে রীতিমতো ভীতির পরিবেশে পরিণত করেছেন প্রধানমন্ত্রী। ভাইরাস নিয়ন্ত্রণে আনতে মাত্র চার ঘণ্টার নোটিশে গোটা দেশকে তালাবন্দি করা হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে কেন্দ্র সরকারের না তো কোনও পরিকল্পনা ছিল। আর না রাজ্য সরকার গুলির সঙ্গে কোনও রূপ আলোচনা করেছে।

এর পরই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর তৈরি পিএম কেয়ারস ফান্ডকে কটাক্ষ করে বসেন ডেরেক। বলেন, পৃথিবীর মধ্যে সবচেয়ে অপারদর্শিতা মূলক সিদ্ধান্ত হল কালো টাকা ফিরিয়ে আনার সিদ্ধান্ত। এরপরই রীতিমতো ঠাট্টা করে তিনি বলেন, ‘যাকে ‘Prime Minister’s Couldn’t-Care-Less Fund’ হিসেবে উল্লেখ করা হয়।’ আবার ভুল শুধরে নিয়ে তিনি বলেন, ‘ওহো আমি বোধহয় ভুল বললাম। ঠিক আছে!’ উল্লেখ্য, করোনা পরিস্থিতি থেকে লড়ার জন্য মার্চের শেষ দিকে পিএম কেয়ারস ফান্ড গঠন করা হয়। সেই ফান্ডে দেশ-বিদেশ থেকে সাহায্যের আর্জি জানায় সরকার। অল্পদিনেই বিপুল পরিমাণ অর্থ সাহায্য আসে এই ফান্ডে। তবে সরকারের তরফে জানানো হয়, পিএম কেয়ার ফান্ডের কোনওরকম হিসেব নিতে পারবে না কেন্দ্রীয় অডিট সংস্থা ক্যাগ বা দেশের জনগণ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here