ডেস্ক: পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্কে ১১,৪০০ কোটি টাকার জালিয়াতি মামলায় বিপদ আরও বেড়ে চলেছে মূল অভিযুক্ত নিরব মোদীর জন্য। নিরবের চাপ বাড়িয়ে তাঁর আরও ২১টি সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করল ইডি। সংবাদ সূত্রে খবর, বাজেয়াপ্ত সম্পত্তির পরিমাণ প্রায় ৫২৩ কোটি টাকা। এরমধ্যে সামিল রয়েছে বহু জমি এবং বাগানবাড়ি। মোদীর সম্পত্তির খোঁজে তদন্ত চালিয়ে এই পরিমাণ সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করে ইডি।

গতকালের পর আজ ফের নিরব মোদীর ৩০ কোটি টাকার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টও ফ্রিজ করা হয়। কয়েক কোটি টাকার প্রায় ১০ হাজারটি দামি ঘড়িও বাজেয়াপ্ত করে বিজেপি। কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা ইডির তরফে এক বিবৃতি দিয়ে জানানো হয়েছে, তারা এই সম্পত্তি প্রিভেনশন অফ মানি লন্ডারিং অ্যাক্ট (পিএমএলএ) অনুযায়ী বাজেয়াপ্ত করেছে। বাজেয়াপ্ত হওয়া সম্পত্তির মধ্যে রয়েছে ৮১ কোটির একটি পেন্টহাউস। এছাড়াও মুম্বইয়ের ওরলিতে ‘সমুদ্র মহল’ নামের একটি ফ্ল্যাটেও তালা ঝুলিয়েছে ইডি। এই ফ্ল্যাটটির বর্তমান বাজারমূল্য প্রায় ১৬ কোটি টাকা।

উল্লেখ্য, গত ১৪ ফেব্রুয়ারি ব্যাঙ্ক জালিয়াতির এই ঘটনা সামনে আসার পরই নিরব মোদীর সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করা শুরু করে ইডি। এর আগে বাজেয়াপ্ত করা হয় নিরবের ৯টি বিলাসবহুল গাড়ি যার মধ্যে মার্সেডিজ, রোলস রয়্যালস, পোর্শার মতো নামীদামী ব্র্যান্ড সামিল ছিল। অন্যদিকে টাকা ফেরত দেওয়ার সুনির্দিষ্ট পন্থা নিয়ে নিরবকে হাজির হওয়ার নির্দেশ দিয়েছে ইডি। কিন্তু নিরবের দাবি, তাঁর সমস্ত সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত হয়ে যাওয়ায় তিনি কোনও টাকাই ফেরত দিতে পারবেন না। তা সত্ত্বেও আগামী ২৬ ফেব্রুয়ারি নিরব সহ তাঁর মামা মেহুল চোকসিকে তলব করেছে ইডি। এবার সেদিন তিনি আদৌ হাজির হবেন কিনা সেটাই হবে দেখার বিষয়।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here