kolkata news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: টানা ৮ দিনের দীর্ঘ লড়াই। এসএসকেএমের ডাক্তারদের নিরলস চেষ্টা, কোনও কিছুতেই কিছু হল না। শুক্রবার থেকেই অবস্থার অবনতি হচ্ছিল পোলবা পথ দুর্ঘটনায় আহত ঋষভ সিংয়ের। ছড়িয়ে পড়ে সংক্রমণও। অবশেষে মাল্টিঅর্গান ফেলিয়র হয়ে মৃত্যু হয় ওই খুদে স্কুল পড়ুয়ার। এদিন সকালে তার মৃত্যুর খবর স্বীকার করে নেয় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

হাসপাতালের তরফে জানানো হয়েছে, শুক্রবার রাত থেকেই শারীরিক অবস্থার ক্রমশ অবনতি হতে থাকে ঋষভের। শরীরের প্রায় সমস্ত গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গে ছড়িয়ে পড়ে সংক্রমণ। ভেন্টিলেশনের পাশাপাশি চলতে থাকে ECMO-র সাহায্যে কৃত্রিমভাবে শ্বাসপ্রশ্বাস দেওয়ার প্রক্রিয়া। যদিও কাজে আসেনি কোনও কিছুই। মস্তিস্কে অক্সিজেন না পৌঁছনয় তার মস্তিষ্ক কর্মক্ষমতা হারায়। রক্তের কর্মক্ষমতা বজায় রাখতে সিঙ্গেল ডোনার প্লেটলেটও দেওয়া হয়। তবে শরীর নিতে পারেনই কোনও কিছুই। রাত্রি ১১ টা নাগাদ ধীরে ধীরে শূন্যে নেমে আসে রক্তচাপ। অবশেষে শনিবার ভোর ৫ টা নাগাদ মৃত্যু হয় ওই খুদে পড়ুয়ার। অন্যদিকে, আগের তুলনায় কিছুটা হলেও ভাল আছে আর এক আহত পড়ুয়া দিব্যাংশু ভগত। শুক্রবার মায়ের ডাকে সাড়াও দিয়েছে সে।

উল্লেখ্য, গত ১৪ ফেব্রুয়ারি পোলবায় স্কুলের পথে দুর্ঘটনায় গুরুতর জখম হয় ঋষভ ও তার এক সহপাঠি দিব্যাংশু ভগত। দুর্ঘটনার পরই গ্রিন করিডর করে ওই দুই আহত ছাত্রকে নিয়ে আসা হয় কলকাতার এসএসকেএম হাসপাতালে। মেডিকেল টিম গঠন করে চলতে থাকে চিকিৎসা। দুজনকেই রাখা হয় ভেন্টিলেশনে। তবে ডাক্তারদের দীর্ঘ চেষ্টা সত্ত্বেও বাঁচানো গেল না ঋষভকে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here