news bengali kolkata
Highlights

  • তৃণমূলের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাতে গিয়ে বিক্ষোভ দেখায় বিজেপি
  • গেরুয়া শিবির মাইক বাজিয়ে থানা ঘেরাও করে
  • মাধ্যমিকের সময় মাইক ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা না মানাতেই উত্তপ্ত হয় পরিস্থিতি

নিজস্ব প্রতিবেদক, পশ্চিম বর্ধমান: বিজেপি-পুলিশ সংঘর্ষে উত্তপ্ত হয়ে উঠল দুর্গাপুর। তৃণমূলের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাতে বিজেপি এদিন নিজেই জড়িয়ে পড়ে বিতর্কে। থানা ঘেরাও করে জোরে মাইক চালাতে থাকে। মাধ্যমিক পরীক্ষা শেষ হওয়ার আগে মাইক বাজানোয় নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। তা অমান্য করা নিয়েই কথা কাটাকাটি। তা থেকে সংঘর্ষ। ঘটনায় এলাকা জুড়ে তীব্র চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

একটি পার্কের দেখভালের দায়িত্ব প্রাপ্ত সংস্থার কর্ণধার তথা বিজেপি নেতা দেবাশীষ রায়। অভিযোগ তাঁকে ঘেরাও করে তৃণমূল কংগ্রেস আশ্রিত দুষ্কৃতীরা মাররধর করে গুলি চালায়। এই ঘটনার প্রতিবাদে বিজেপির পক্ষ থেকে রবিবার দুর্গাপুর থানা ঘেরাও করে মাইক বাজিয়ে বিক্ষোভ দেখানো হয়।

অভিযোগ, শনিবার দুর্গাপুর কুমার মঙ্গলম পার্কে পার্কের লিজ হোল্ডার দেবাশিস রায়ের অনুমতি ছাড়া আন্তঃ রাষ্ট্রীয় হিন্দি পরিষদের এক অনুষ্ঠানের প্যাণ্ডেল বাধা হচ্ছিল। তাতে বাধা দেওয়াকে কেন্দ্র করেই শুরু হয় সংঘর্ষ। গুলি চালানোর অভিযোগও ওঠে তৃণমূলের বিরুদ্ধে।

ঘটনার প্রতিবাদে রবিবার কুমার মঙ্গলম পার্ক থেকে কয়েকশো বিজেপি কর্মী পশ্চিম বর্ধমান জেলার সভাপতি লক্ষণ ঘড়ুইয়ের নেতৃত্বে দুর্গাপুর থানা ঘেরাও করা হয় অভিযুক্তদের গ্রেফতারের দাবিতে। বিক্ষোভে মাইক বাজানো হয়। আর তা থেকেই শুরু হয় কথা কাটাকাটি। পরিস্থিতি উত্তপ্ত হতে হতে তা ধ্বস্তাধস্তি ও সংঘর্ষের রূপ নেয়। পরে অবশ্য ব্যারিকেড দিয়ে পুলিশ বাহিনীর তৎপরতায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে।

লক্ষণ ঘড়ুইয়ের বলেন, মাধ্যমিক পরীক্ষা চলাকালীন মাইক বাজানো অন্যায় হয়েছে ঠিকই। কিন্তু তৃণমূল মাইক বাজিয়ে কী ভাবে অনুষ্ঠান করে? পুলিশ তৃণমূলের হয়ে কাজ করছে বলেও দাবি করেন তিনি।

আসানসোল দুর্গাপুর পুলিশ কমিশনারেটের পূর্ব শাখার ডিসিপি অভিষেক গুপ্তা বলেন, বেআইনি ভাবে মাইক বাজানোর জন্য আমরা আইনত ব্যাবস্থা নেব । আন্তঃরাষ্ট্রীয় হিন্দি মঞ্চের অনুষ্ঠানকে ঘিরে দুর্গাপুর কুমারমঙ্গলম পার্কে দুই রাজনৈতিক গোষ্ঠীর সংঘর্ষে ধুন্ধুমার কাণ্ড বেধে যায়। উত্তেজনা এমন পর্যায়ে পৌঁছায় যে সংঘর্ষে গুলি চলার অভিযোগ ওঠে। আহত হয় বেশ কয়েকজন। উভয়পক্ষই দুর্গাপুর থানায় একে অপরের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করে। বিজেপির কর্মীদের আক্রমণের প্রতিবাদে রবিবার বিজেপির জেলা নেতৃত্বের পক্ষ থেকে দুর্গাপুর থানা ঘেরাও কর্মসূচি নেওয়া হয়।

কর্মসূচিকে ঘিরে পুলিশের সঙ্গে এক প্রস্থ ধ্বস্তাধস্তি হয়। ঘটনার ঘণ্টাখানেক পর বিজেপি সমর্থকরা দুর্গাপুর থানায় প্রতিবাদ পত্র জমা দিয়ে ফিরে যায়। অন্যদিকে কুমারমঙ্গলম পার্কে আন্তঃ রাষ্ট্রীয় হিন্দি পরিষদের নির্ধারিত কর্মসূচিকে ঘিরে ব্যাপক পুলিশি ব্যবস্থার আয়োজন করা হয়েছিল। ঘটনায় এলাকা জুড়ে তীব্র উত্তেজনার সৃষ্টি হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here