নিজস্ব প্রতিবেদক, শিলিগুড়ি: দেশের বেশ কিছু জাতীয় সড়কের পাশাপাশি রাজ্য সড়কগুলির নানা প্রান্তে প্রায়ই শোনা যায় লরির চালক ও খালাসিকে ঘায়েল করে পণ্যবোঝাই লরি নিয়ে চম্পট দিয়েছে দুষ্কৃতী দল। বেশ কিছু ক্ষেত্রে লরি চালক ও খালাসিকে গুম খুনও করে দেওয়া হত। এবার সেই ঘটনার আদলেই টোটো ছিনতাইয়ের চক্র মাথাচাড়া দিয়েছিল উত্তরবঙ্গের প্রাণকেন্দ্র শিলিগুড়ি শহরে। সেখানে বিগত কয়েক সপ্তাহ ধরেই টোটো চুরি যাওয়ার অভিযোগ পাচ্ছিল পুলিশ অথচ কোন জায়গা থেকেই মিলছিল না কোন সুত্র। অবশেষে সেই টোটো চুরি চক্রের পর্দাফাঁস করতে সক্ষম হল পুলিশ। গ্রেফতার করা হল ১ মহিলা সহ মোট ৫জনকে।

জানা গিয়েছে, চলতি মাসের ১০ তারিখ ও ১৫ তারিখ শিলিগুড়ি পুলিশ কমিশনারেটের অধীনস্থ নিউ জলপাইগুড়ি থানায় টোটো চুরির দুটি পৃথক অভিযোগ জমা পড়ে। সেই ঘটনা দুটির তদন্তে নেমে পুলিশ বুঝতে পারে যাত্রী সেজেই টোটোতে উঠে টোটোচালককে বেহুঁশ করে টোটো নিয়ে পালাচ্ছে ওই চক্রের লোকেরা। পুলিশ এটাও জানতে পারে ওই দলে একজন মহিলাও রয়েছে। যে দুইজন টোটো চালকের যান চুরি গিয়েছিল তাদের সঙ্গে কথা বলে পুলিশ বুঝতে পারে চালককে বেহুঁশ করার পিছনে চায়ের সঙ্গে কোন কিছু মিশিয়ে দেওয়া হচ্ছে। ওই দুই অভিযোগের ভিত্তিতেই নিউ জলপাইগুড়ি থানার পুলিশ অভিযানে নেমে রবিবার রাতে গ্রেপ্তার করে ২টি টোটো সহ ৫ জনের টোটো চোরের দলটিকে।

 

জানা গিয়েছে, এই চুরির সঙ্গে সরাসরি ভাবে যুক্ত তিনজন পুতুল দাস, অনিমেশ দাস ও গৌতম রায়। বাকি দুই জনের মধ্যে একজন আমীর শেখ তাদেরকে পৌঁছে দিত টোটোওয়ালার খাবারের মধ্যে যে ওষুধ মেশাতে হবে সেই ওষুধ এবং অনিমেষ সাহা নামের আরেকজন সরাসরি যুক্ত থাকতো সেই চুরি হওয়া টোটোর কেনাবেচার সঙ্গে। এই ঘটনার সাথে আরও কেউ যুক্ত রয়েছে কিনা সেই ব্যাপারে তদন্ত করছে নিউ জলপাইগুড়ি থানার পুলিশ। এই পাঁচজনকেই সোমবার সাত দিনের পুলিশ রিমান্ডের দাবি জানিয়ে জলপাইগুড়ি জেলা আদালতে পাঠায় নিউ জলপাইগুড়ি থানার পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here