নিজস্ব প্রতিবেদক, দার্জিলিং: কয়েকদিন আগেই পাহাড়ে নতুন রাজনৈতিক শিবির হিসাবে মাথা তুলেছিল জিএনএলএফের সঙ্গে বিজেপির জোট সমীকরণ। তাতে আবার মদত দিচ্ছিল গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার গুরুং-গিরি শিবিরও। সেই জোট যখন দানা বাঁধছে ঠিক সেই রকম অবস্থায় পাহাড়ে গ্রেফতার হলেন জিএনএলএফের এক শ্রমিক নেতা। সেই ঘটনার জেরে রবিবার সকাল থেকেই উত্তেজনা ছড়ালো পাহাড়ে। হল থানা বিক্ষোভের মত ঘটনাও। যার জেরে পুলিশকেও দ্রুত সিদ্ধান্ত নিতে হয় গ্রেফতার হওয়া ওই নেতাকে সমতলে নামিয়ে আনার।

শনিবার গভীর রাতে জিএনএলএফের শ্রমিক সংগঠনের নেতা জে বি তামাংকে গ্রেফতার করে দার্জিলিংয় জেলার সদর মহকুমার জোড়বাংলো থানার পুলিশ। গভীর রাতে পুলিশ জোরবাংলোতে জে বি তামাংয়ের বাড়ি চার দিক থেকে ঘিরে ফেলে তাকে গ্রেপ্তার করে। তবে কি কারণে গ্রেফতার করা হয়েছে তা এখনও স্পষ্ট নয়। কিন্তু এই গ্রেপ্তারির জেরেই রবিবার সকাল থেকে জিএনএলএফ কর্মী সমর্থক ও শ্রমিক সংগঠনের সদস্যরা জোড়বাংলো থানার সামনে বিক্ষোভ শুরু করে দেয়। জিএনএলএফ সমর্থকদের দাবি পুলিশ অন্যায় ভাবে গভীর রাতে ওই শ্রমিক নেতাকে গ্রেফতার করেছে। ঘটনার জেরে রবিবার সকাল থেকেই পাহাড়ে উত্তেজনা আঁচ বাড়তে থাকায় জে বি তামাংকে দ্রুত পাহাড় থেকে সমতলে নামিয়ে নার সিদ্ধান্ত নেয় জেলা পুলিশ প্রশাসন। সেই মতো তাকে নকশালবাড়ি থানায় স্থানান্তরিত করে দেওয়া হয়। রবিবারই ধৃত শ্রমিক নেতাকে শিলিগুড়ি মহকুমা আদালতে তোলা হয়।

 

এই গ্রেফতারির পরেই রাজনৈতিক ভাবে সরব হয়েছে জিএনএলএফ। তাদের বক্তব্য, বিজেপির সঙ্গে তাদের জোট ভয় পাইয়ে দিয়েছে রাজ্যের শাসক দলের পাশাপাশি গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার বিনয় তামাং গোষ্ঠীকে। সহজ পথে এই জোটের মোকাবিলা করা যাবে না বলেই শাসক দল পুলিশকে কাজে লাগিয়ে জে বি তামাংকে গ্রেফতার করেছে। যদিও এই অভিযোগ উড়িয়ে তৃণমূলের দাবি, নির্বাচন ঘোষণা হয়ে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে গোটা দেশ জুড়েই জারি হয়ে গিয়েছে আদর্শ আচরণবিধি। পশ্চিমবঙ্গের প্রশাসণও এর ব্যতিক্রম নয়। তাই যে পুলিশ এখন নির্বাচণ কমিশনারের অধীনে রয়েছে তাদের রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে ব্যবহার করার কোন সুযোগ এখন নেই। কাজেই এটা সর্বোইব মিথ্যা যে তৃণমূল পুলিশকে দিয়ে এই গ্রেফতারির ঘটনা ঘটিয়েছে। পুলিশই একমাত্র বলতে পারবে ওই শ্রমিক নেতাকে কোন অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়েছে।

পরে পুলিশের তরফে জানানো হয়, গত বছর জয়েন্ট ফোরামের ডাকে উত্তরকন্যা অভিযান হয়েছিল। সেই সময় জাতীয় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখানোর জন্য নকশালবাড়ি থানায় মামলা হয় জে বি তামাংয়ের বিরুদ্ধে। সেই মামলার জেরেই গ্রেফতার করা হয়েছিল তামাংকে। আদলত অবশ্য এদিন তামাংকে জামিনে মুক্তি দিয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here