kolkata news
Parul

নিজস্ব প্রতিনিধিবিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধে স্বতঃপ্রণোদিত মামলা দায়ের পুলিশের। শুভেন্দু বাদে আরও পাঁচ বিধায়কের বিরুদ্ধেও দায়ের হয়েছে মামলা। মামলা দায়ের করেছে পূর্ব মেদিনীপুর জেলা পুলিশ।

ads

সোমবার পূর্ব মেদিনীপুরের তমলুকের নিমতৌড়িতে একটি কার্যকারিণী সভায় যোগ দেন শুভেন্দু। সেখানেই পুলিশকে তিনি হুঁশিয়ারি দেন বলে অভিযোগ। ভোট পরবর্তী কালে পূর্ব মেদিনীপুরেও হিংসার শিকার হয়েছেন গেরুয়া শিবিরের বহু নেতাকর্মী। বিনা কারণে বিজেপি কর্মীদের বিরুদ্ধে অভিযোগও দায়ের করা হচ্ছে। এসবেরই প্রতিবাদে এদিন নিমতৌড়ির এসপি অফিসের সামনে সভা করেন শুভেন্দু। ওই সভায় জেলার সব বিধায়কই উপস্থিত ছিলেন। সভায় শুভেন্দু বলেন, এখানে একটা বাচ্চা ছেলে এসপি এসেছে। মিস্টার অমরনাথ কে। কী করছেন, প্রত্যেক দিন কাকে ডাকছেন, সব জানি। আমি অনেক পুরানো খেলোয়াড়। আপনাদের শুধু বলে গেলাম, আপনি সেন্ট্রাল ক্যাডারের অফিসার। এমন কাজ করবেন না যাতে কাশ্মীরের অনন্তনাগে ডিউটি করতে হয়। বিরোধী দলনেতা বলেন, প্রত্যেকটা ফোন কল, রেকর্ড আমাদের কাছে আছে। আপনাদের হাতে যদি রাজ্যের সরকার থাকে, তবে আমাদের কাছেও কেন্দ্রের সরকার আছে। নরেন্দ্র মোদি কাশ্মীরকে সিধে করে দিয়েছেন। সিবিআই তদন্তের হুঁশিয়ারিও দেন শুভেন্দু।

করোনা আবহে সরকারি নিয়ম লঙ্ঘন করে জমায়েত করা সহ একাধিক কারণে শুভেন্দুর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে পুলিশ। তমলুক থানার পুলিশই স্বতঃপ্রণোদিতভাবে এই মামলা করেছে। এফআইআরে শুভেন্দু ছাড়াও নাম রয়েছে পাঁচ বিজেপি বিধায়কের। এঁদের মধ্যে রয়েছেন, ময়নার অশোক দিন্ডা, ভগবানপুরের রবীন্দ্রনাথ মাইতি, খেজুরির শান্তনু প্রামাণিক, দক্ষিণ কাঁথির অরূপকান্তি দাস এবং হলদিয়ার তাপসী মণ্ডল। ভারতীয় দণ্ডবিধির ১০টিরও বেশি ধারা প্রয়োগ করা হয়েছে বিজেপির ওই নেতাদের বিরুদ্ধে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here