মহানগর ডেস্ক: সকাল থেকেই নেট দুনিয়ায় ভাইরাল হয়েছে একটি ভিডিয়ো। তাতে দেখা যাচ্ছে উত্তর প্রদেশের একজন পুলিশ অফিসারকে একটি রেস্তোরার সামনে ধাক্কা দিচ্ছেন এক যুবক। যুবকটি কে শাস্তি দিতে তৎক্ষণাৎ পয়েন্ট ব্লাঙ্ক রেঞ্জে গুলি চালালেন পুলিশ অফিসার। সঙ্গে সঙ্গে ছেলেটির মৃত্যু হয়। যুবকটির সঙ্গে থাকা তাঁর মেয়ে বান্ধবীটি কাঁদতে কাঁদতে তাঁর মৃতদেহের পাশে বসে পড়ে। এর পর সে চিৎকার করে পুলিশ অফিসারের ওপর। সঙ্গে সঙ্গে পুলিশটি মেয়েটির উপরেও গুলি চালিয়ে দেয়।চারপাশে ভিড় জমা হয়ে যায়। এইটুকুই ছিল ভিডিয়োটি। সেটি কেউ একজন আপলোড করে সোশ্যাল মিডিয়াতে। তার পরই প্রকাশ্যে গুলি চালানোর ভিডিও টি ভাইরাল হতে শুরু করে নেট মাধ্যমে। মুহুরতেই ৩ লাখ ৭ হাজার নেট নাগরিকের কাছে পৌঁছে যায় এই ভিডিয়ো।

ভিডিয়োটি নিয়ে হইচই শুরু হলে নড়েচড়ে বসে প্রশাসন। তৎক্ষণাৎ ভিডিয়োটির সত্যতা যাচাই করা হয়। এরপর জানা যায় এটি একটি শুটিংয়ের দৃশ্য। ভিডিয়োটিতে দেখা যায় হরিয়ানার করনেলে ফ্রেন্ডস ক্যাফের সামনে ঘটেছে এই ঘটনা। উত্তর প্রদেশের দুষ্কৃতী দমন শাখার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রাহুল শ্রীবাস্তব এই ঘটনার সত্যতা যাচাই করে টুইট করেন। তিনি জানান, ‘সকাল থেকে ফ্রেন্ডস ক্যাফের বাইরে গুলি চালানোর যে ভিডিয়োটি ভাইরাল হয়েছে সেটি একটি ওয়েব সিরিজের শুটিংয়ের দৃশ্য। এটির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন ভিডিয়োতে দেখানো ফ্রেন্ডস কাফের ম্যানেজার। বাস্তবে এই ধরনের কোন ঘটনা ঘটেনি।’ ঘটনার সত্যতা জানার পর নেট নাগরিকরা জানিয়েছে, ‘এই ঘটনা কাম্য নয়। কোনো ওয়েবসিরিজে এই ধরনের হিংসাত্মক দৃশ্য রাখা উচিত নয়।’ ‘এই ধরনের ভয়াবহ ওয়েব সিরিজ ব্যান করে দাওয়া উচিত। এতে পুলিশ বিভাগের বদনাম হয়।’ অনেকে আবার বলেছে, ‘এই ধরনের দৃশ্য গুলি ভারতীয় নাগরিকরদের মধ্যে নিরাপত্তা হীনতা বাড়িয়ে তলে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here