নবান্ন অভিযানে সামিল ২মহিলা সহ ২২ বামকর্মী-সমর্থককে আদালতে পেশ পুলিশের

0
377
kolkata bengali news

নিজস্ব প্রতিবেদক, হাওড়া: শনিবার নবান্ন-কাণ্ডে ধৃতদের তোলা হল আদালতে। শুক্রবার সিঙ্গুর থেকে নবান্ন চলো অভিযানকে কেন্দ্র করে রণক্ষত্রের চেহারা নেয় হাওড়ার মল্লিকফটক সংলগ্ন বঙ্গবাসী এলাকা। এই ঘটনায় মোট ২২জন আন্দোলনকারীকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এর মধ্যে ২ জন মহিলা। তাদের বিরুদ্ধে পুলিশ জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা শুরু করেছে। শনিবার অভিযুক্তদের হাওড়া আদালতে নিয়ে আসা হলে তাদের দু’দিনের জেল হেফাজতের নির্দেশ দেন বিচারক। সরকারি কর্মচারীকে কর্তব্য হতে বিরত রাখার জন্য ইচ্ছাকৃতভাবে আঘাত করা, হুমকি দেওয়া, সরকারী সম্পত্তি নষ্ট সহ একাধিক ধারায় এই ২২জন বামকর্মী-সমর্থকদের বিরুদ্ধে মামলা রুজু করেছে পুলিশ।

শনিবার অভিযুক্তদের পক্ষে আইনজীবী মিহির বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘পুলিশ উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে মিথ্যা মামলা দিয়েছে। যে ধারায় মামলা হয় না, যে ঘটনা ঘটেনি সেই ধারায় মামলা দিয়েছে পুলিশ। রাজনৈতিক হিংসা চরিতার্থ করার জন্য এমন করা হয়েছে। সোমবার সকলের জামিনের জন্য আবেদন করা হবে। যাতে তাদের জামিন হয় তার ব্যবস্থা করা হবে।’ অপরদিকে এদিন সরকারী পক্ষের আইনজীবী জানান, অভিযুক্ত আন্দোলনকারীদের বিরুদ্ধে ভারতীয় দন্ডবিধির ১৪৭/১৪৮/১৪৯/৩২৩/৩৩২/৩৩৩/৩৩৫/৩৫৩/৩৭৯/৫০৬/৩৪ ধারা এবং ওয়েস্টবেঙ্গল মেনটেনেন্স অফ পাবলিক অর্ডার অ্যামেন্ডমেন্ট অ্যাক্টের ৯(১৫এ) ধারায় এবং প্রিভেনশন অফ ড্যামেজেস অফ প্রপার্টি ধারায় মামলা রুজু করা হয়েছে।

উল্লেখ্য শুক্রবার দুপুরে বামপন্থী ছাত্র যুব সংগঠনের সিঙ্গুর থেকে নবান্ন চলো কর্মসূচি ঘিরে হাওড়ার বঙ্গবাসী মোড় সংলগ্ন জি.টি.রোড রণক্ষেত্রের চেহারা নিয়েছিল। অভিযোগ আন্দোলনকারীদের মিছিল থেকে পুলিশকে লক্ষ্য করে ছোঁড়া হয় ইট, লাঠি, কাচের বোতল, রঙের বোতল, এমনকি স্মোক বোমও। পুলিশের পাইলট কার সহ তিনটি গাড়ি ভেঙে দেন আন্দোলনকারীরা। বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে ব্যাপক লাঠিচার্জ করে পুলিশ। বিক্ষোভকারীদের লক্ষ্য করে ছোঁড়া হয় কাঁদানে গ্যাস। এমনকি জলকামানও ব্যবহার করা হয়। প্রায় পৌনে দু’ঘন্টা ধরে চলা এই ঘটনায় উভয় পক্ষের জখম হন অনেকে। এদের মধ্যে বেশ কয়েকজনের আঘাত গুরুতর। এই ঘটনায় পুলিশ গ্রেফতার করে ২২ জনক। তাদেরকেই এদিন আদালতে তোলা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here