ডেস্ক: যে নন্দীগ্রাম জমি আন্দোলন রাজ্যে রাজনৈতিক পালা বদলে সবচেয়ে বড় ভূমিকা নিয়েছিল, ৩৪ বছরের বামফ্রন্ট সরকারকে পর্যুদস্ত করে ক্ষমতায় এসেছিল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নেতৃত্বাধীন তৃণমূলস কংগ্রেস৷ এবার পঞ্চায়েত নির্বাচনে সেই নন্দীগ্রামেই লাগামহীন সন্ত্রাসের ছবি ধরা পড়েছে৷ এবার অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে৷ অভিযোগ, গত ১৪ মে পঞ্চায়েত নির্বাচনের দিন নন্দীগ্রামের একটি বুথে ভোট দিতে এলে গুলি করে খুন করা হয় দুই সিপিএম কর্মীকে। যদিও অভিযোগ অস্বীকার করে শাসকদল। বুধবার সেই বুথে ফের ভোট নেওয়া হচ্ছে৷ কিন্তু এলাকা থমথমে৷ মানুষ এতটাই ভীত-সন্ত্রস্ত, যে ভোট দিতে বুথে আসতে চাইছেন না কেউ৷

নন্দীগ্রাম ২ নম্বর ব্লকের গোপালপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৩৩ নম্বর বুথ এদিন সকাল থেকে ফাঁকা। ভোটকর্মী এবং নিরাপত্তারক্ষী মোতায়েন করা হলেও ভোট দেওয়ার লোক নেই৷ ভোটার না থাকায়, বেশ কয়েক ঘন্টা বসে থাকতে হয় ভোটকর্মীদের৷ পরে বিশাল পুলিশবাহিনী গ্রামের বাড়ি বাড়ি গিয়ে নিরাপত্তার আশ্বাস দেয়৷ ভোট দিতে ইচ্ছুকদের নিজেরা সঙ্গে নিয়ে এসে ভোট দেওয়ায় পুলিশ৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here