kolkata bengali news

নিজস্ব প্রতিবেদক, তুফানগঞ্জ: কোচবিহার জেলার তুফানগঞ্জ মহকুমার ধলপল এলাকায় গরু চুরিকে কেন্দ্র করে তীব্র উত্তেজনা ছড়াল শুক্রবার। অভিযোগ, গত এক দেড় সপ্তাহ ধরে ওই এলাকার অনেকের বাড়ি থেকেই বেশ কয়েকটি গরু চুরি গিয়েছে। তা নিয়ে ভুক্তভোগী বাসিন্দারা পুলিশের কাছে অভিযোগও জানিয়েছেন। অথচ পুলিশ নাকি ওই ঘটনার কোন তদন্তই করছে না। তা নিয়েই ক্ষোভ বাড়ছিল এলাকাবাসীর। শুক্রবার সকালে এলাকার এক বাড়ি থেকে আরও একটি গরু চুরি যাওয়ার খবর ছড়িয়ে পড়লে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন গ্রামবাসীরা। সেই বিক্ষোভ তুলতে গিয়েই আক্রান্ত হয় পুলিশ। ঘটনার তথ্য সংগ্রেহে গিয়ে আক্রান্ত হয় সংবাদমাধ্যমের কর্মীরাও।

ধলপল এলাকার ছাটরামপুর গ্রামে গত কয়েকদিন ধরেই গরু-বাছুর চুরি হচ্ছিল। এলাকাবাসীর অভিযোগ, পুলিশকে সে কথা জানাবার পরেও তারা এই ঘটনার তদন্তে কোন রকম জোর দেয়নি। এদিন সকালে আরও একটি গরু চুরির খবর সামনে আসতেই বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন গ্রামবাসীরা। পুলিস পৌঁছালে ক্ষোভ গিয়ে পড়ে তাদের ওপর। পুলিসের গাড়ি ভাঙচুর করেন গ্রামবাসীরা। এর পর একাধিক পুলিসের গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়। উন্মত্ত জনতার আক্রমণে রক্ষা পাননি তুফানগঞ্জের ওসি সৌমাল্য আইচ। তাকে মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। তার মাথায় আঘাত লেগেছে বলে প্রাথমিকভাবে জানা গিয়েছে।

এদিকে এই ঘটনার ছবি তুলতে গেলে সাংবাদিকদের মারধর করেন বিক্ষোভকারীরা। তাদের ক্যামেরা ও মোবাইল ফোন কেড়ে নেওয়া হয়। ভেঙে দেওয়া হয় ক্যামেরা। ঘটনায় তিনজন সাংবাদিক গুরুতর আহত অবস্থায় তুফানগঞ্জ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বেশ কিছুক্ষণ তাণ্ডবের পর এলাকায় পৌঁছায় পুলিসবাহিনী। পৌঁছায় মহিলা পুলিসের দল ও র‍্যাফ। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত এলাকায় উত্তেজনা রয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here