kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: ক্যাবের জেরে ইতিমধ্যেই প্রতিবাদে সরব হয়ে উঠেছে উত্তর-পূর্বের রাজ্য অসম। রীতিমতো অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতি চলছে বিজেপির সর্বানন্দ সোনওয়ালের রাজ্য। পরিস্থিতি সামাল দিতে সেখানে নামানো হয়েছে সেনা লাগু হয়েছে কার্ফু। এরইমাঝে প্রথম দুঃসংবাদটা এই অসম থেকে। সেনার গুলিতে সেখানে মৃত্যু হল তিন প্রতিবাদীর।

জানা গিয়েছে, কার্ফু জারি থাকা সত্ত্বেও অসমের গুয়াহাটিতে রাস্তায় নেমেছিল আন্দোলনকারীরা। হিংসাত্মক সে আন্দোলন সামাল দিতে গিয়েই এদিন গুলি ছোড়ে সেনা। সেনার গুলিতে গুলিবিদ্ধ হন দিপাজ্জল দাস নামে এক আন্দোলনকারী। গুয়াহাটি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথেই মৃত্যু হয় তাঁর। জানা গিয়েছে, মৃত ওই প্রতিবাদির বাড়ি অসমের ছয়গ্রামে। পাশাপাশি সেনার গুলিতে আরও ২ জনের মৃত্যু হয়। তাঁদের পরিচয় এখনও স্পষ্ট নয়। এই মৃত্যুতে পরিস্থিতি আরও উত্তাল হতে পারে বলেই অনুমান করছে বিশেষজ্ঞ মহল।

এদিকে অসম পরিস্থিতি কড়া হাতে সামাল দিতে গুয়াহাটির পুলিশ কমিশনার পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে দীপক কুমারকে। তাঁর জায়গায় আসছেন আইপিএস মুন্না প্রসাদ গুপ্তা। শুধু তাই নয়, দীপক কুমারের সঙ্গে সঙ্গে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে আরও ৪ জন ডেপুটি কমিশনারকেও। অসম সামলাতে পুলিশের পাশাপাশি এনআইএর হাতে দেওয়া হচ্ছে দায়িত্ব। জানা গিয়েছে, এনআইএর আইজিপি জিপি সিংকে অসম পুলিশের এডিজিপি পদে নিয়ে আসা হচ্ছে। এর আগে অসমের সন্ত্রাস কবলিত এলাকায় আইনশৃঙ্খলা মতায়েনে বিশেষ দায়িত্ব নিয়েছিলেন জেপি সিং। সেই অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে অসমকে শান্ত করতে তাঁকে পাঠাচ্ছে দিল্লি।

উল্লেখ্য, বুধবার রাজ্যসভায় নাগরিকত্ব বিল পাশ হয়ে যাওয়ার পরই বিক্ষোভ চরম আকার নেয় অসমে। রাস্তা অবরোধের পাশাপাশি পুড়িয়ে দেওয়া হয় একাধিক গাড়ি। অসমের মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনওয়াল ও কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রামেশ্বর তেলির বাড়িতে হামলা চালায় বিক্ষোভকারীরা। কার্ফু জারি থাকা সত্ত্বেও রাস্তায় জমায়েত দেখা গিয়েছে প্রচুর মানুষের। পরিস্থিতির জেরে অসমবাসীকে শান্ত থাকার আবেদন জানিয়েছেন সেখানকার মুখ্যমন্ত্রী। এদিন তিনি জানান, ক্যাব একটি জাতীয় বিল। এটার জন্য অসমের আতঙ্কিত হওয়ার কোনও কারণ নেই। আমি মানুষের কাছে অনুরোধ করছি, আপনারা উত্তেজিত না হয়ে শান্ত থাকুন। তবে সব কিছুকে ছাপিয়ে বৃহস্পতিবার ক্যাবের জেরে প্রথম মৃত্যুর খবর এল গুয়াহাটি থেকে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here