kolkata bengali news

ডেস্ক: আর দুই দিন পরেই দ্বিতীয় দফার লোকসভা নির্বাচন। তার আগে তামিলনাড়ুর ভেলোরে নির্বাচন প্রক্রিয়া স্থগিত রাখার পথে হাঁটল নির্বাচন কমিশন। সূত্রের খবর, কিছুদিন আগেই স্থানীয় এক ডিএমকে নেতা তথা ওই কেন্দ্রের প্রার্থীর বাড়ি হানা দিয়ে কয়েক কোটি টাকা বাজেয়াপ্ত করে আয়কর দফতর। ওই বিপুল পরিমাণ টাকা ব্যবহার করে ভোটারদের প্রভাবিত করা হতে পারে, এই আশঙ্কা করেই সেখানে নির্বাচন স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কমিশন।

তামিলনাড়ুর ভেলোর কেন্দ্র থেকে এবার ডিএমকের হয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন কাথির আনন্দ। তিনি আবার ডিএমকের বর্ষীয়ান নেতা দুরাই মুরুগানের পুত্র। ১০ এপ্রিল কাথির আনন্দ ও তাঁর দুই অনুগামীর বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছে স্থানীয় পুলিশ। এরপরেই সেইখানকার নির্বাচন প্রক্রিয়া স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নেয় নির্বাচন কমিশন। সূত্রের খবর, ইতিমধ্যেই রাষ্ট্রপতির কাছে এই মর্মে আবেদনও করেছে কমিশন।

 

আনন্দের বিরুদ্ধে মনোনয়ন পত্রে ‘মিথ্যা তথ্য’ প্রদান করার অভিযোগও এনেছে পুলিশ। তাঁর বিরুদ্ধে ‘রিপ্রেসেন্টেসন অফ পিপল অ্যাক্ট’ -এর অধীনে মামলা রুজু করা হয়েছে। তাঁর দুই সহযোগী, শ্রীনিবাসন ও দামোদরনের বিরুদ্ধে ঘুষ দেওয়ার অভিযোগ আনা হয়েছে। প্রসঙ্গত, ৩০ মার্চ আনন্দের পিতা দুরাই মুরুগানের বাড়িতে হানা দিয়ে সাড়ে দশ লক্ষ বেআইনি অর্থ বাজেয়াপ্ত করে আয়কর দফতর। এরপর ওই ডিএমকে নেতার সিমেন্ট কারখানায় হানা দিয়ে আরও প্রায় ১২ কোটি টাকা উদ্ধার করা হয়। যদিও এই পুরো বিষয়টিকে কেন্দ্রীয় সরকারের চক্রান্ত বলে অভিযোগ করেছেন বর্ষীয়ান ওই ডিএমকে নেতা।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here