মহানগর ওয়েবডেস্ক: দেশের আর্থিক ব্যবস্থায় লকডাউনের জের যে সহসা কাটার নয় সে কথা সরকারের তরফ থেকে কার্যত স্বীকার করেই নেওয়া হয়েছে। জিডিপি’র সংকোচন, বেকারত্বের সঙ্গে কর্মহীন হয়ে পড়া মানুষের সংখ্যা উদ্বেগজনক হয়ে উঠেছে ইতিমধ্যেই। যদিও লকডাউন শিথিল হওয়ার দ্বিতীয় পর্যায়ে সামান্য আলোর রেখা দেখা দিয়েছে বলে জানানো হয়েছে অর্থ মন্ত্রকের পক্ষ থেকে। কিন্তু সাধারণ মানুষের স্বস্তির শ্বাস পড়তে এখনও বেশ কিছুদিন বাকি বলেই মনে করছেন অর্থনীতির বিশেষজ্ঞরা।

এই পরিপ্রেক্ষিতে কেন্দ্রীয় সরকারের ক্যাবিনেট বৈঠকে নেওয়া হল একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত। দেশের দরিদ্রতমদের বিনামূল্যে খাদ্যশষ্য দেওয়ার প্রকল্পটি চলতি বছরের নভেম্বর মাস পর্যন্ত চালু রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হল। এই পদক্ষেপের ফলে কঠিন পরিস্থিতির সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার জন্য দেশের দরিদ্রতম মানুষরা আরও কিছুটা সময় পেলেন।

একই সঙ্গে আরেকটি অত্যন্ত প্রয়োজনীয় সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয় আজকের ক্যাবিনেট বৈঠকে। ৭ কোটি ৪০ লক্ষ দরিদ্রতম মহিলাকে সেপ্টেম্বর মাস পর্যন্ত তিনটি এলপিজি সিলিন্ডার দেওয়া হবে। পূর্ব গৃহীত সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বিনামূল্যে গ্যাস সিলিন্ডার পাওয়ার মেয়াদ ছিল এপ্রিল থেকে জুন পর্যন্ত। অর্থাৎ এক্ষেত্রেও প্রকল্পটির মেয়াদ ৩ মাস বাড়িয়ে দেওয়া হল।

প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে হওয়া ক্যাবিনেট বৈঠক শেষে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী প্রকাশ জাভাদেকর সাংবাদিকদের জানান, মন্ত্রীসভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আরও পাঁচ মাস দেশের ৮১ কোটি দরিদ্রতম মানুষকে মাথাপিছু ৫ কেজি করে খাদ্যশষ্য ও মাসে ১ কেজি করে ডাল দেওয়া হবে। এই প্রকল্পের জন্য সরকারের মোট ব্যয় হবে ১ লক্ষ ৪৯ হাজার কোটি টাকা।

২০২০ সালের অগস্ট মাস পর্যন্ত ২৪ শতাংশ (১২ শতাংশ কর্মী ও ১২ শতাংশ সংস্থা) ইপিএফ দেওয়ার প্রস্তাবটিকে আজকের ক্যাবিনেট বৈঠকে অনুমোদন দেওযা হয়। ৭২ লক্ষ কর্মীর জন্য এই খাতে সরকারের ব্যয় হবে ৪,৮৬০ কোটি টাকা বলে জানানো হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here