Home Featured ‘ভাড়া করা জামা পড়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট, ছিল না কোন অসৎ উদ্দেশ্য’

‘ভাড়া করা জামা পড়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট, ছিল না কোন অসৎ উদ্দেশ্য’

0
‘ভাড়া করা জামা পড়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট, ছিল না কোন অসৎ উদ্দেশ্য’
Parul

মহানগর ডেস্ক: আজই যাদবপুরে বিক্রমগড়ের বাসিন্দা শুলগ্না ঘোষের সোশ্যাল মিডিয়া কলকাতা পুলিশ সার্জেন্ট এর পরিচয় ছবি সকলের নজরে আসে। এমনকি কলকাতার কমিশনারকে নিজের বাবা বলেও পরিচয় দেন তিনি। এই কর্মকাণ্ড সামনে আসতেই শোরগোল পড়ে যায় শহরজুড়ে। মামলা দায়ের করা হয় কলকাতা পুলিশের সাইবার ক্রাইম থানায়। হইচই পড়তেই যুবতী নিজের অ্যাকাউন্ট থেকে সবকটি ছবি মুছে ফেলেন।

জানা গিয়েছে অভিযুক্ত যুবতী, কয়েকদিন ধরেই নিজেকে ট্রাফিক সার্জেন্টের পরিচয় সোশ্যাল মিডিয়ায় পুলিশের উর্দি পড়ে একাধিক ছবি পোস্ট করেছিলেন। সূত্রের খবর অনুযায়ী জানা যাচ্ছে, এখনো পর্যন্ত ওই যুবতী বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ পাওয়া যায়নি। তবে কেন তিনি এই ধরনের ভুয়ো ছবি এবং ভুয়ো পরিচয় দিয়ে এসেছেন এবং কলকাতার কমিশনারকে নিজের বাবা বলে পরিচয় দিয়ে ছবি পোস্ট করলেন তা এখনও জানা যায়নি। তবে তাকে জেরা করে জানার চেষ্টা করছে তদন্তকারীরা।

সম্প্রতি তার ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইলে কলকাতা পুলিশের সার্জেন্ট এর পরিচয় ও পুলিশের উর্দি পড়ে ছবি পোস্ট করতে দেখা গিয়েছিল। এমনকি তার বায়োতে কলকাতা পুলিশ কমিশনারকে নিজের বাবা বলে সম্মোধন করা ছিল। বিষয়টি নজরে আসতেই তার ইনস্টাগ্রামে ফলোয়ার্স তরুনীর বিরুদ্ধে পুলিশে অভিযোগ দায়ের করেন। এই প্রসঙ্গে অভিযুক্ত যুবতী জানিয়েছেন, ইউটিউবে ভিডিও বানানোর জন্য ওই পোশাক ভাড়া করে নিয়ে এসে ছবি দিয়েছিলেন তিনি। দুটি ভিডিও একটি স্টিল ছবি দেওয়ার কথা স্বীকার করেন তিনি। তবে তার কোনও অসৎ উদ্দেশ্য ছিল না।

তবে কোথা থেকে তিনি পুলিশের উর্দি ভাড়া করেছেন তার সদুত্তর এখনো তিনি দিতে পারেননি। এমনকি কলকাতা পুলিশের নগরপাল কে নিজের বাবা বলে কেন পরিচয় দিয়েছেন তারও যুক্তিপূর্ণ উত্তর দিতে পারেননি সুলগ্না। তিনি জানিয়েছেন যে, তার ইনস্টাগ্রামে কিভাবে সেটি লেখা হলো সেটা তিনি জানেন না। তার বিরুদ্ধে পুলিশের অভিযোগ উঠলেও তা মানতে রাজি নন তিনি। যিনি অভিযোগ করেছেন তার সঙ্গে তার টিকটকে পরিচয় হয় বলে জানিয়েছে সুলগ্না।

অভিযুক্তের দাবি সোশ্যাল মিডিয়ায় তার ফ্যান ফলোয়ার্স এর বাড়ার কারণে হিংসায় এই অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here