ডেস্ক: উত্তরপ্রদেশ সরকারের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা যতদিন যাচ্ছে তত খারাপ হয়ে যাচ্ছে। তারই উৎকৃষ্ট প্রমান পাওয়া গেল এদিনের ঘটনায়। বাগপাতের মুগালপুরা এলাকায় ঠিক সময় অ্যাম্বুলেন্স না আসায় এক অন্তঃসত্ত্বা প্রথমে মহিলা রিক্সার মধ্যেই প্রসব করতে বাধ্য হন। এরপরেই সদ্যজাতকে নিয়ে জেলা হাসপাতালে নিয়ে গেলে ডাক্তাররা শিশুটিকে ভর্তি করতে অস্বীকার করে। সঠিক সময় চিকিৎসা না পাওয়ায় শেষ পর্যন্ত মৃত্যু হয় শিশুটির।

পরিবার সূত্রে জানা গেছে যে, প্রথমে অনেকক্ষণ ধরে অ্যাম্বুলেন্সকে ফোন করেও লাইন না পাওয়া যাওয়ায় মহিলাটির স্বামী রিক্সায় করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। সে সময়েই মহিলার প্রসব বেদনা ওঠে এবং ই-রিক্সার মধ্যেই এক শিশুর জন্ম দেন তিনি। মা এবং বাচ্চাকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে ডাক্তাররা বাচ্চাটিকে ভর্তি নিতে অস্বীকার করে এবং এরপরই মৃত্যু হয় নবজাতকের। অবশ্য চিকিৎসকদের দাবী, বাচ্চাটি অকালজাত শিশু ছিল সেইজন্য তাঁরা অন্য হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে।
সূত্র মারফত জানা গেছে, যখন জেলা হাসপাতাল বাচ্চাটির চিকিৎসা করতে অস্বীকার করে দেয়, তখন একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা শুরু হওয়ার আগেই শিশুটির মৃত্যু হয়। এই ঘটনায় মৃত শিশুটির স্বামী স্থানীয় জনপুরি থানায় ওই সরকারি হাসপাতালের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here