ডেস্ক: ভোটের মাঠে দক্ষ ‘ফিনিশার’ যদিও কেউ হয়ে থাকেন, তা অবশ্যই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। স্লগ ওভারে নেমে প্রচারের ঝড় তোলা কাকে বলে তিনি খুব ভাল করেই জানেন। কর্ণাটকের রায়চূড়ের সভা থেকেও একই ঝাঁঝ দেখালেন তিনি। একই সঙ্গে তিনি বলেন, ‘এই নির্বাচনে কর্ণাটকের ভবিষ্যৎ, এখানের যুবক, কৃষক এবং মা-বোনেদের ভাগ্য বদলে দেবে।’

এদিনের সভাতেও ‘বিকাশ’ টপকে মোদীর ভাষণে কংগ্রেস সমালোচনাই বেশি করে জায়গা পেয়েছিল। তিনি বলেন, ‘এতদিনে কংগ্রেসের কোনও নেতামন্ত্রী আপনাদের ৫ বছরের হিসাব দিয়েছেন? সকাল-সন্ধ্যে মোদী আর মোদী। মোদীকে গালি দেওয়া ছাড়া কংগ্রেসের আর কোনও এজেন্ডা দেখতে পাওয়া যাচ্ছেনা। এই কংগ্রেসকে বিদায় জানানোর সময় চলে এসেছে।’ তিনি আরও বলেন, একদিকে দুর্নীতির বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো বিজেপি রয়েছে, অন্যদিকে দুর্নীতির রক্ষক কংগ্রেস রয়েছে। সাধারণ মানুষ দুর্নীতির বিরুদ্ধেই কথা বলবে।

রায়চূড়ের সভায় মোদী আরও বলেন, ”আমরা ওবিসি কমিশনকে সাংবিধানিক অধিকার দেওয়ার জন্য পদক্ষেপ নিয়েছিলাম। কিন্তু দলিত এবং ওবিসি বিরোধী কংগ্রেসের নেতাদের কারণে রাজ্যসভায় সেই বিল পাশ হয়নি। কর্ণাটকে এর শাস্তি কংগ্রেসকে পেতে হবে। কংগ্রেস মিথ্যার অভিযান চালাচ্ছে। স্বাধীনতার ৭০ বছর পর্যন্ত দেশের চোখে ধুলো দেওয়া ছাড়া আর কিছুই করেনি করেনি।”

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here