ডেস্ক: পড়ুয়াদের পড়াশুনার চাপ কমাতে ‘পরীক্ষা পর চর্চা’-তে বান্ধবসুলভ মেজাজে কচিকাঁচা সহ উঠতি শিক্ষানবিশদের ধরা দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। পড়ুয়াদের সঙ্গে কথা বলার সময় মনে হল যেন এক ধাক্কায় বয়স অনেকটাই কমে গিয়েছে। ছাত্রছাত্রীদের একের পর এক প্রশ্নের নিরলস ভাবে উত্তর দিয়ে গেলেন প্রধানমন্ত্রী। কখনও মনসংযোগ নিয়ে কথা বললেন, আবার কখনও পড়ুয়ারা তাদের প্রতি মা-বাবার দৃষ্টিভঙ্গি কীভাবে বিচার করবে, সেই টিপসও বাতলে দিলেন। একই সঙ্গে এও বলেন যে, তিনিই আজ পরীক্ষা দিতে এসেছেন পড়ুয়াদের সামনে। শুরুতেই মোদী জানান, ”সকলে ভুলে যান যে আজ তারা প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলছেন। আমি আজ আপনাদের বন্ধু, সকলের পরিবার ও অভিভাবকদেরও আমি বন্ধু।”

একনজরে দেখুন পড়ুয়াদের উদ্দেশ্যে আজ কী বললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী…

  • আত্মবিশ্বাস এবং সততাই আসল। আত্মবিশ্বাস না থাকলে কিছুই করা সম্ভব নয়।
  • ছাত্রছাত্রীরা নিজেই নিজের পরীক্ষক। পড়ুয়াদের নিজেদের ঠিক করতে হবে তারা নিজেদের ভবিষ্যৎ কেমন তৈরি করতে চায়।
  • পরীক্ষার থেকে ভয় পাওয়ার কোনও কারণ নেই। নিজেদের ভিতরের শিক্ষার্থীকে কখনও মরতে দিও না।
  • কোনও কাজ করার সময় সমগ্র মনসংযোগ সেদিকেই রাখা প্রয়োজন।
  • প্রত্যেকের চিন্তা-ভাবনা এবং পরিবেশ ভিন্ন। নিজেদের শক্তি চিহ্নিত করে সেই পথে এগিয়ে যাও।
  • মা-বাবার উপর কখনও সন্দেহ করতে নেই। সকলেই চান যেন তাঁর ছেলে-মেয়ে জীবনে সুপ্রতিষ্ঠিত হয়।
  • ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে অন্যান্য রাজ্যদের পড়ুয়াদের প্রশ্নেরও উত্তর দেন প্রধানমন্ত্রী।
  • বাকিদের সঙ্গে নিজেদের তুলনায় যেও না। প্রত্যেকের আলাদা আলাদা বিশেষত্ব রয়েছে।
  • একাগ্রতার আনার জন্য আলাদা ভাবে চেষ্টার প্রয়োজন নেই। যেই বিষয়টির উপর কারও আগ্রহ রয়েছে, তা নিয়ে কাজ করলেই একাগ্রতা আপনি আসবে।
  • পরীক্ষা চলাকালীন মাথা থেকে বের করে দাও পরীক্ষা চলছে। তোমাদের মূল্যায়ন কেউ করতে পারে না। আত্মবিশ্বাস বৃদ্ধি পাবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here