ইউনিসেফ-এর ‘ড্যানি কায়ে হিউম্যানিটেরিয়ান’ পুরস্কারে ভূষিত হলেন প্রিয়াঙ্কা!

0
43
kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: দেশ-বিদেশে তিনি ভারতকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। কাজের পাশাপাশি নিজের দায়িত্বগুলোকে সমানতালে পালন করে চলেছেন অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। দেশ-বিদেশে তিনি খ্যাতি অর্জন করেছেন। খুব কম লোকই জানেন, অভিনেত্রী ইউনিসেফ (The United Nations Children’s Fund)-এর রাষ্ট্রদূত হয়ে দেশ-বিদেশের প্রত্যন্ত এলাকায় গিয়ে কাজ করে থাকেন। বিশেষত, বাচ্চাদের পড়াশুনো এবং তাদের নৈতিক অধিকারের হয়ে কাজ করে যান প্রিয়াঙ্কা। আর তাঁর এই কাজকে কুর্ণিশ জানিয়ে প্রিয়াঙ্কাকে ‘ড্যানি কায়ে হিউম্যানিটেরিয়ান’ পুরষ্কারে সম্মানিত করা হয়েছে।

ইউনিসেফ-এর সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন অভিনেত্রী। তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ছবি শেয়ার করেন। যেখানে প্রিয়াঙ্কাকে বাচ্চাদের সঙ্গে দেখা যাচ্ছে কথা বলতে। তিনি লেখেন, অবিশ্বাস্য ব্যাপার! গর্ববোধ হচ্ছে। ধন্যবাদ জানাই ইউনিসেফ-কে । আমার সঙ্গে তাদের কাজ বহুদিনের। গোটা বিশ্বজুড়ে আমরা ছোট ছোট ছেলেমেয়েদের সমস্ত দায়িত্ব পালন করে চলেছি। পড়াশুনা থেকে শুরু করে সবরকম কাজে তাদের সহযোগিতা করা হয়। শান্তি, স্বাধীনতা এবং শিক্ষার অধিকার। ইউনিসেফ-এর প্রতিনিধি হয়ে প্রিয়াঙ্কা এই বছরের মে মাসে ইথিওপিয়াতে যান। সেখানে তিনি বাচ্চাদের সঙ্গে কথা বলেন এবং অনেক মানুষদের অনুপ্রেরণার কাহিনী তুলে ধরেন।

 

অভিনেত্রীর এই কাজকে সমর্থন এবং সম্মান জানিয়েছেন স্বামী নিক জোনাস। তিনি গর্বিত বোধ করছেন। নিক জানান, প্রিয়াঙ্কা চোপড়া সকলের অনুপ্রেরণা এবং তিনি সবাইকে উৎসাহিত করে চলেছেন। ইউনিসেফ-এর হয়ে তিনি যে কাজ করে যাচ্ছেন তা অবিশ্বাস্য। গর্বিত বোধ করছি যে আমি প্রিয়াঙ্কার স্বামী। তবে এসবের মাঝে এক ইউজার প্রিয়াঙ্কাকে প্রশ্ন করে বসেন, আমাদের মাতৃভূমির জন্য কি করলেন? এর জবাবে প্রিয়াঙ্কা জানান,বাচ্চাদের ভবিষ্যৎ নিয়ে চিন্তাভাবনা করা আমাদের প্রত্যেকেরই কাজ। এই কাজে কখনও বাদ বিচার করা যায় না। ইউনিসেফ-এর হয়ে আমি ভারতেও অনেক কাজ করেছি এবং ভবিষ্যতেও করে যাব বলে জানান তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here