priyanka Gandhi

মহানগর ডেস্ক: উত্তরপ্রদেশে বক্তব্য রাখতে গিয়ে কড়া ভাষায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে আক্রমণ করলেন কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক প্রিয়াঙ্কা গান্ধি বঢরা। তিনি বলেন, আমাদের প্রধানমন্ত্রী পাকিস্তানে, চিনে যেতে পারেন। কিন্তু তাঁর কৃষকদের কাছে আসার সময় হয় না। তাঁদের সঙ্গে আলোচনা করার সময় হয় না। উত্তরপ্রদেশের সাহরানপুরে কৃষকদের মহাপঞ্চায়েত সভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে প্রিয়াঙ্কা গান্ধি বঢরা প্রথম থেকেই আক্রমণাত্মক ভূমিকায় ছিলেন।

বুধবার বক্তব্য রাখতে গিয়ে প্রিয়াঙ্কা গান্ধি বঢরা বলেন, ‘তারা (সরকার) কৃষকদের দেশদ্রোহী বলে উল্লেখ করেন। আদতে তারাই দেশদ্রোহী বলেন।’ তিনি বলেন, ‘কৃষকদের তারা কখনও সন্ত্রাসবাদী, জঙ্গি বলে উল্লেখ করছে। তারা কৃষকদের সন্দেহ করছে। কৃষকরা প্রতিটি ভারতবাসীর মনে আছে। কৃষকরা কখনই দেশ বিরোধী কোনও কাজ করতে পারেন না। তাঁরা সারাজীবন শুধু চাষ করেন, সোনার ফষল ফলানোর চেষ্টা করেন। তাঁরা আমাদের অন্ন দেন। তাঁরা কি করে দেশ বিরোধী কাজ করতে পারেন।’ এরপরেই তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর পাকিস্তানে যাওয়ার সময় আছে। চিনে যাওয়ার সময় আছে। তাঁর দিল্লির সীমান্তে আন্দোলনরত কৃষকদের কাছে আসার, আলোচনা করার সময় নেই ।

প্রসঙ্গত, প্রায় দুই মাসের বেশি সময় ধরে, কৃষকরা দিল্লির সীমান্তে বিক্ষোভ করছেন। কৃষকদদের এই বিক্ষোভ দমিয়ে দেওয়ার জন্য একাধিক পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। জল, বিদ্যুৎ ও ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। কৃষকদের জন্য আন্দোলন আরও প্রতিকূল করার চেষ্টা করা হয়েছে। অন্য দিকে, সাধারণতন্ত্র দিবসে লালকেল্লার হিংসার ঘটনায় কৃষক আন্দোলন অনেকটাই ব্যাকফুটে চলে গিয়েছিল। তবে কৃষক নেতা রাকেশ টিকায়েতের আবেগঘন মন্তব্য নতুন করে কৃষক আন্দোলনে জোর পায়।
প্রসঙ্গত সাধারণতন্ত্র দিবসে কৃষকদের ট্র্যাক্টর ব়্যালি করা পরিকল্পনা ছিল। একদল আন্দোলনকারী লালকেল্লায় চলে যান। সেখানে তাঁরা ভাঙচুর করেন। পতাকা ওড়ান। বিভিন্ন ভিডিও ছবিতে অভিনেতা দীপ সিধুর ফুটেজ পাওয়া যায়। অভিযোগ ওঠে, অভিনেতা দীপ সিধু একদল কৃষককে খেপিয়ে তুলেছিল। যদিও বিক্ষুব্ধ কৃষকদের একাংশ অভিনেতা দীপ সিধুকে বিজেপির চর বলে দাবি করছে। দিল্লি পুলিশ ইতিমধ্যে দীপ সিধু ও ইকবাল সিং নামের দুজনকে গ্রেফতার করেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here