মহানগর ওয়েবডেস্ক: গ্রেফতারি এড়াতে তাঁকে কোনও সুরক্ষা নয়, আইএনএক্স মিডিয়া মামলায় পি চিদাম্বরমের বিরুদ্ধে এমনই রায় দিয়েছে আদালত। দিল্লি হাইকোর্ট আইএনএক্স মিডিয়ায় দুর্নীতি ও টাকা নয়ছয় মামলায় তাঁর আগাম জামিনের আবেদন খারিজ করে দেওয়ার পর সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হন তিনি। এককথায়, এই মুহূর্তে প্রচণ্ড চাপেই রয়েছেন প্রাক্তন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী। তবে তাঁর পাশে রয়েছে দল। বিজেপির বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের অভিযোগ তুলে সরব হয়েছেন কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়াঙ্কা গান্ধী সহ কংগ্রেস মুখপাত্র রণদীপ সিং সুরজেওয়ালা।

পি চিদাম্বরম প্রসঙ্গে প্রিয়াঙ্কা লেখেন, ‘প্রচণ্ড শিক্ষিত ও শ্রদ্ধেয় ব্যক্তি এবং রাজ্যসভার সদস্য পি চিদাম্বরমজি সততার সঙ্গে দেশের সেবা করেছেন অর্থমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে। তিনি সর্বদা সত্যের পক্ষে কথা বলেন এবং সরকারের ভুল সকলের সামনে তুলে ধরেন।’ তিনি আরও বলেন, ‘কাপুরুষদের সত্যি বা সততা কোনওটাই পোষায় না, তাই তাঁকে নির্লজ্জের মতো নিশানা করা হচ্ছে। আমরা তাঁর সঙ্গে রয়েছি এবং সত্যের জন্য সবসময় লড়াই করব, পরিস্থিতি যাই হোক না কেন।’

একইভাবে বিজেপিকে সরকারি আক্রমণ করেন কংগ্রেস মুখপাত্র রণদীপ সিং সুরজেওয়ালাও। তিনি বলেন, ‘ষড়যন্ত্রের রাজনীতি করে পুলিশি রাজ্যের মতো দেশ চালাচ্ছে বিজেপি সরকার। এইভাবে একজন শ্রদ্ধেয় রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বকে গোয়েন্দা সংস্থা দ্বারা হেনস্থা করা হচ্ছে।’

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার দিল্লি হাইকোর্টের বিচারপতি সুনীল গৌর ২০১৮ সালের ২৫ জুলাই আইএনএক্স মিডিয়ার দুটি মামলায় চিদাম্বরমকে যে রক্ষাকবচ দেওয়া হয়েছিল তা প্রত্যাহার করে নিয়েছেন। ওই সময়ের পর থেকে বারবারই এই রক্ষাকবচের মেয়াদ বৃদ্ধি করা হয়েছিল। বিচারপতি বলেছেন আগাম জামিনের দুটি আবেদনই খারিজ করে দেওয়া হয়েছে। তিনি জানান আইনের বজ্রমুষ্টি তেকে কেউই রেহাই পাবেন না৷ এরপরেই সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হন প্রাক্তন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী। সুপ্রিম কোর্টে তাঁর হয়ে মামলা লড়বেন কংগ্রেসর নেতা তথা প্রাক্তন কেন্দ্রীয় আইনমন্ত্রী কপিল সিব্বল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here