kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি, কোচবিহার: কেন্দ্রীয় দলকে ফিরে যাওয়ার পরামর্শ দিলেন উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ। তিনি বলেন, তারা যতক্ষণ এখানে থাকবেন, ততক্ষণ আমাদের কর্মীদের তাদের সঙ্গে থাকতে হচ্ছে। ফলে আমাদের কাজে অনেক অসুবিধা হচ্ছে। তাই তারা চলে গেলে ভাল। কারণ আমাদের রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী যে উদ্যোগ নিয়েছেন, তাতে মানুষ অনেক ভাল আছেন। শনিবার এভাবেই কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দলকে নিয়ে কটাক্ষ করলেন উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ। এদিন করোনা নিয়ে কোচবিহার জেলাশাসক দফতরে একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ, বিনয়কৃষ্ণ বর্মন, জেলাশাসক পবন কাদিয়ান-সহ জেলা স্বাস্থ্য দফতরের আধিকারিকরা উপস্থিত ছিলেন। বৈঠকে মূলত নাকা চেকিং আরও বাড়ানো নিয়ে আলোচনা হয়। সেই বৈঠক থেকে বেরিয়ে কেন্দ্রীয় দলকে কটাক্ষ করেন উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ। শুধু কটাক্ষই নয়, অবিলম্বে ওই দলকে রাজ্য থেকে ফিরে যাওয়ার পরামর্শও দিয়েছেন তিনি। কারণ ওই দলের সঙ্গে থাকতে হচ্ছে রাজ্যের অনেক পদাধিকারীকে। যার ফলে অনেক সমস্যা হচ্ছে। তাই ওই দল ফিরে গেলে কাজের অনেক সুবিধা হবে।

উল্লেখ্য, কেন্দ্রের পাঠানো দুটি প্রতিনিধি দল একটি কলকাতা থেকে সন্নিহিত এলাকা পরিদর্শন করেছে। অন্য দলটি উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন জায়গায় পরিদর্শন করছে। উত্তরবঙ্গে থাকা দলটি গতকাল শিলিগুড়ি বাজার পরিদর্শন করে। সেখানে পরিদর্শন শেষে ওই দলের প্রধান বিনীত জোশী বলেন, পশ্চিমবঙ্গে লকডাউন মানা হচ্ছে না। মানুষ রাস্তায় বের হচ্ছে। কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দলটি রানিডাঙ্গা এসএসবি ক্যাম্প থেকে সরাসরি শিলিগুড়ি উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতাল পরিদর্শনে যান। সেখানে গিয়ে মেডিক্যালের অধ্যক্ষ ও অন্যান্য আধিকারিকদের সঙ্গে কথা বলেন। এরপর তিনি মেডিক্যালের ভিআরডিএল ল্যাব ঘুরে দেখেন। খতিয়ে দেখেন উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে চিকিৎসার পরিকাঠামো।

এদিন দলের প্রধান বিনীত জোশী সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে বলেন, উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পর্যাপ্ত কিট রয়েছে। ওই কেন্দ্রীয় দলের সদস্যরা এদিন শিলিগুড়ির নিয়ন্ত্রিত বাজার,  বিধান মার্কেট-এর সবজি বাজার ও নয়াবাজারের বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শন করেন। কথা বলেন ব্যবসায়ীদের সঙ্গেও। এদিন শিলিগুড়ির বিভিন্ন বাজার পরিদর্শন করার পর কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দলের প্রধান বিনীত জোশী অভিযোগ করে বলেন, পশ্চিমবঙ্গে লকডাউন পালন হচ্ছে না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here