ডেস্ক: রবিবার সন্ধেবেলা খবর আসে, প্রয়াত হয়েছেন গোয়ার মুখ্যমন্ত্রী মনোহর পারিক্কর। বিন্দুমাত্র সময় না করে সোমবার রাতেই নতুন মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ নিয়ে নিলেন বিজেপির প্রমোদ সাওয়ান্ত। পারিক্করের মৃত্যুর পরের এই মুহূর্তে গোয়ার বিধানসভায় কংগ্রেস বিধায়করা বিজেপির চেয়ে সংখ্যাগরিষ্ঠ। অথচ সরকার ধরে রেখেছে বিজেপিই। এই অবস্থায় নতুন সরকার গঠন করার স্বার্থে নিজেদের সর্বশক্তি দিয়ে ঝাঁপিয়েছিল কংগ্রেস। আবেদন করা হয়েছিল গোয়ার রাজ্যপালের কাছেও। কিন্তু আগাম সর্তকতা অবলম্বন করে গোয়ার পরবর্তী মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়ে ফেলেন প্রমোদ

পারিক্করের মৃত্যুর ফলে গোয়ায় রাজনৈতিক যে সংকট তৈরি হয়েছিল, তাই দিন অনেকটাই কমে গেল বলে মনে করছে বিশেষজ্ঞ মহল। বর্তমানে গোয়া স্পিকারের দায়িত্ব পালন করেন প্রমোদ। তাঁর ঘাড়ে গিয়েই চেপেছে মুখ্যমন্ত্রীর দায়িত্ব। মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ নেওয়ার পর বিধানসভার স্পিকারের পদ থেকে তিনি ইস্তফা দিয়ে দিতে পারেন।

তবে পারিক্করের মৃত্যুর প্রায় ৩০ ঘণ্টার মধ্যেই নতুন মুখ্যমন্ত্রী শপথ নিয়ে ফেলার এই প্রক্রিয়া মোটেও সহজ ছিল না। প্রমোদ সাওয়ান্তকে মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে মেনে নিতে একেবারেই রাজি ছিল না গোয়ার বিজেপি শরিকদলগুলি। অন্যদিকে সরকার গঠনের জন্য তক্কে তক্কে থাকা কংগ্রেসও লাগাতার চাপ সৃষ্টি করে চলেছিল রাজ্যপালের উপর। ফলে কিছুটা চাপের মুখেই নতুন মুখ্যমন্ত্রীকে স্বীকার করে নিতে হল সে রাজ্যের শরিকদের। অন্যদিকে নতুন মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে তাঁর মন্ত্রিসভার ১১ সদস্য শপথ নিয়েছেন। সেই সদস্যদের কেন্দ্র করেও গোয়ার রাজনীতিতে আগামীর সময় ভাঙন দেখা যেতে পারে বলে মনে করছেন বিরোধীরা।

গতকালই রাজ্যপালের সঙ্গে দেখা করে সরকার গঠনের দাবি জানিয়েছিল কংগ্রেস। বিজেপিকে তাদের অবস্থান স্পষ্ট করার মতো সময় দিয়েছিলেন রাজ্যপাল। আর সেই সময়ই নতুন মন্ত্রিসভা ও নতুন মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণা করে কংগ্রেসের আগেই বাজিমাত করে দিল বিজেপি। আর রাজ্যপাল বিজেপিকে এই সুবিধা দেওয়ায় নতুন করে ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে কংগ্রেস শিবিরে। তবে গোয়া বিধানসভাকে কেন্দ্র করে যে আগামী সময় ফের রাজনৈতিক সংকট দেখা দেবে তা এখন থেকেই বলে দেওয়া যাচ্ছে। কারণ এই মুহূর্তে গোয়া বিধানসভায় কংগ্রেস বিধায়কের সংখ্যা বেশি। তাই যে কোনও মুহূর্তে বিজেপির বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব এনে সরকার উলটে দেওয়ার চেষ্টা চলবে, তা ধরে নেওয়া যায়।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here